কোচবিহারে গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু তৃণমূল নেতার

কোচবিহার: গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু হল এক তৃণমূল নেতার৷ শুক্রবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে সিতাই থানার ব্রহ্মোত্তর চাত্রা এলাকায়৷ মৃতের নাম মুজিবর মিঞা৷ তৃণমূলের তরফে অভিযোগ, বেশ কিছুদিন ধরেই এলাকায় সন্ত্রাসের পরিবেশ তৈরি করেছিল অর্জুন মণ্ডল নামে এক দুষ্কৃতী৷ শুক্রবার রাতে এলাকার মানুষ তাকে ধরে ফেলে৷ কিন্তু তাঁদের হাত ছাড়িয়ে সে আশ্রয় নেয় শ্বশুরবাড়িতে৷

অভিযোগ, সেই সময় উত্তেজিত এলাকাবাসী সেই বাড়িতে ভাঙচুর চালান৷ এরপরই বাড়ির ভিতর থেকে পরপর গুলি আসতে থাকে৷ সেই গুলি লাগে মুজিবর মিঞা নামে এক তৃণমূল নেতার মাথায়। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তাঁর। এদিকে এই ঘটনার পরই এলাকা ছেড়ে পালায় অভিযুক্ত৷ পুলিশ জানিয়েছে, অর্জুনের খোঁজে তল্লাশি চলছে৷

আরও পড়ুন: দেবকে একদম বিশ্বাস করবেন না : রুক্মিনী

উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ বলেন, দীর্ঘদিন ধরেই এলাকায় বিভিন্ন সমাজবিরোধী কাজের সঙ্গে যুক্ত অর্জুন মণ্ডল নামে এই দুষ্কৃতী৷ এলাকাবাসী তাকে ধরে ফেলায় সে গুলি ছুঁড়তে শুরু করে৷ আর সেই গুলি মাথায় লেগে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়েছে মুজিবরের৷ অভিযুক্তকে দ্রুত গ্রেফতাদের দাবি করেছেন তিনি।

তবে এলাকাবাসীর দাবি অন্য৷ তাঁদের অভিযোগ, এই লড়াই আসলে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর লড়াই৷ দুই তরফ থেকেই গুলি ছোঁড়া হয়৷ যদিও এ অভিযোগ মানতে নারাজ রবীন্দ্রনাথ ঘোষ৷ তিনি বলেন, এখানে তৃণমূলের কোনও গোষ্ঠীও নেই৷ গোষ্ঠীকোন্দলও নেই৷

রবীন্দ্রনাথ ঘোষ বলেন, অর্জুন মণ্ডল নামে ওই দুষ্কৃতী এক সময় ফরওয়ার্ড ব্লক করত৷ কিন্তু এখন সে কোন দল করেন তা তাঁর জানা নেই৷ পুলিশসুপার ভোলানাথ পাণ্ডে জানিয়েছেন, ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ৷ অভিযুক্তের খোঁজে তল্লাশি চলছে৷

আরও পড়ুন: ‘পাকিস্তান জুড়ে সাংবাদিকতার মৃত্যুর ঘণ্টাধ্বনি শোনা যাচ্ছে’

Advertisement
----
-----