অটোচালককে মারধরের অভিযোগ তৃণমূল-কংগ্রেসের বিরুদ্ধে

কোচবিহার: অটোচালককে মারধরের অভিযোগ উঠল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে। সেই অটোচালক বিজেপি কর্মী বলে জানা গিয়েছে। কোচবিহার ২ নম্বর ব্লকের বোকালির মঠ এলাকায় অটোর ভাড়া চাওয়ায় সেই অটোচালক তথা বিজেপি কর্মীকে মারধর করার অভিযোগ তৃণমূল-কংগ্রেসের বিরুদ্ধে। গুরুতর আহত অবস্থায় ঐ অটো চালক মানিক রায়কে কোচবিহার এমজেএন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বিজেপির অভিযোগ, মুখ্যমন্ত্রীর চকচকাতে জনসাভায় মানিক রায়ের অটো ভাড়া নেয় তৃণমূল কংগ্রেস স্থানীয় নেতারা। প্রথমে চকচকাতে এবং তারপর বোকালির মঠে তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীদের পৌঁছে দেন অটোচালক। শনিবার রাত সাড়ে নটা নাগাদ বোকালিরমঠ এলাকায় স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা প্রাভাত রায় মণ্ডলের কাছে ৫৫০ টাকা অটোর ভাড়া চাইতে যান মানিক রায়। সেই সময় প্রভাত রায়ের নির্দেশে নির্মল রায় নামে অন্য এক তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী মানিক রায়কে মারধর করে বলে অভিযোগ।

গুরুতর আহত অবস্থায় শনিবার রাতেই কোচবিহার এমজেএন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রবিবার সকালে আহত বিজেপি কর্মীর সঙ্গে দেখা করতে যান বিজেপির জেলা সভাপতি নিখিল রঞ্জন দে সহ অন্যান্য নেতারা। এদিন পুন্ডিবাড়ি থানায় এই বিষয়ে অভিযোগ দায়ের করা হয়।

- Advertisement -

বিজেপি জেলা সভাপতি নিখিল রঞ্জন দে অভিযোগ করেন প্রতিদিন জেলার কোথাও না কোথাও বিজেপি কর্মীরা আক্রান্ত হচ্ছেন। পুলিশ প্রশাসনকে জানানো সত্বেও কোন লাভ হচ্ছে না। উল্টে তাদের কর্মীদের নামেই পাল্টা মামলা করছে তৃণমূল কংগ্রেস। এই ঘটনায় অভিযুক্তদের গ্রেফতারের দাবি করেছেন তিনি। এদিকে এই ঘটনার কথা অস্বীকার করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। তাদের দাবি মিথ্যা অভিযোগ আনা হয়েছে বিজেপির পক্ষ থেকে। ঘট

নার তদন্ত করছে পুন্ডিবাড়ি থানার পুলিশ। এদিকে শনিবার শিতলকুচিতে তৃণমূল কংগ্রেসের হাতে আক্রান্ত বিজেপি নেতা প্রসেনজিৎ বর্মনকে কোচবিহার এমজেএন হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে।