গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব ছিনিয়েছে ‘আব্বা’র প্রাণ, সব হারিয়েও পরীক্ষায় বসল তৃণমূলকর্মীর ছেলে

প্রতীকী ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, কালনা: কেটে গিয়েছে মাঝে তিনটি দিন৷ বদলে গিয়েছে জীবন৷ ‘আব্বা’র মৃত্যুতে ‘সব হারিয়ে’ বিপর্যস্ত আমিনুল৷ তাও অদম্য মনের জোরে পরীক্ষায় বসল কালনার সুলতানপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের আমিনুল ইসলাম৷ তার বাবা সুলতানপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান মৃত শুকুর আলি৷

তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরে গত শনিবার সন্ধ্যায় খুন হন কালনার সুলতানপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান শুকুর আলি শেখ ও বাপন শেখ৷ এখনও থমথমে গোটা গ্রাম৷ বাবার মৃত্যুর একসপ্তাহ কাটতে না কাটতে একরাশ আতঙ্ক নিয়ে কালনার ধাত্রীগ্রাম বহুমুখী বিদ্যালয়ে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় বসল মৃত প্রধানের ছেলে আমিনুল ইসলাম৷

কালনার সিমলন অন্নপূর্ণা কালী মন্দিরের ছাত্র আমিনুল ইসলাম৷ আমিনুল জানিয়েছে, তাঁকে ডাক্তার করার স্বপ্ন দেখেছিলেন বাবা৷ সেই স্বপ্নপূরণ করতে বাবাকে হারিয়ে পরীক্ষা কেন্দ্রে পৌঁছায় আমিনুল৷ সঙ্গে ছিল কাকা ও দাদা৷ এদিন বাড়ি থেকে কালনা থানার পুলিশ পরীক্ষা কেন্দ্রে পৌঁছে দেয় তাঁদের৷ এখনও পরিস্থিতি থমথমে তাই আতঙ্ক রয়েছে গোটা পরিবার৷

- Advertisement -

এই জোড়া খুনের ঘটনায় সোমবার রাতে পুলিশ আরও আব্দুল আলিম শেখ নামে আরও একজনকে কালনার রসুলপুর থেকে গ্রেফতার করে৷ ফলে গ্রেফতারের সংখ্যা দাঁড়াল পাঁচে৷ এদিন ধৃতকে কালনা আদালতে তোলা হলে বিচারক ১৪ দিনের বিচারবিভাগীয় হেপাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন৷

Advertisement ---
---
-----