স্টাফ রিপোর্টার, হাওড়া: রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশাসনিক বৈঠকের জন্য ইতিমধ্যেই তোড়জোড় শুরু হয়ে গিয়েছে৷ আজ বৃহস্পতিবার হাওড়ার শরৎ সদনে এই প্রশাসনিক বৈঠক হওয়ার কথা৷ সেই বৈঠককে কেন্দ্র করে দু’দিন আগে থেকেই কড়া নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হয়েছে গোটা শরৎ সদন চত্বরকে।

প্রসঙ্গত, শরৎ সদনের মুল মঞ্চ সহ অন্যান্য স্থানে স্নিফার ডগ এবং মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে বারে বারে পরীক্ষা করা চলছে৷ এই প্রসঙ্গে হাওড়া সিটি পুলিশ কমিশনার ডি.পি. সিং জানিয়েছেন, এই বৈঠকের জন্য পূর্বে যা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল এবারেও সেই ব্যবস্থাই নেওয়া হয়েছে। মূল মঞ্চে থাকছে প্রায় ৬০ টি আসন। চলতি বছরেই পুজোর পর পুরভোট হতে চলেছে হাওড়ায়। এর আগে এদিনের প্রশাসনিক বৈঠক উপলক্ষ্যে হাওড়ায় আসবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

শরৎ সদনে ওই প্রশাসনিক বৈঠক উপলক্ষ্যে প্রস্তুতি এখন প্রায় শেষ পর্যায়েই বলা চলে। তবে এই বৈঠকে প্রবল ভাবে থাকার সম্ভাবনা অরূপ রায়, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, লক্ষ্মীরতন শুক্লার পাশাপাশি আরও অনেক মন্ত্রীরই। থাকবেন হাওড়ার মেয়র ড. রথীন চক্রবর্তী, জেলাশাসক চৈতালি চক্রবর্তী, সাংসদ প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়, সাজদা আহমেদ থেকে শুরু করে জেলার সব বিধায়ক, জেলা পরিষদের আধিকারিক, পুলিশ আধিকারিকগণও।

সঙ্গে থাকছেন বিভিন্ন সরকারি দফতরের আধিকারিকরা। জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক থেকে শুরু করে হাসপাতাল সুপার, পঞ্চায়েতের আধিকারিকরা উপস্থিত থাকবেন আজকের এই প্রশাসনিক বৈঠকে। এই প্রশাসনিক বৈঠক উপলক্ষে গত কয়েকদিন ধরেই প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। শরৎ সদনের সংলগ্ন সব রাস্তা নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা রয়েছে।

উল্লেখ্য, বৈঠকের জন্য রাস্তার দু’ধারে তৈরি করা হয়েছে বাঁশের ব্যারিকেড। যে রাস্তা ধরে মুখ্যমন্ত্রী আসবেন সেই রাস্তায় নজরদারি জোরদার করা হয়েছে। সিসিটিভির মাধ্যমে গোটা এলাকায় নজরদারি করা হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে। শরৎ সদনের এই প্রশাসনিক বৈঠক উপলক্ষ্যে সাড়ে আট হাজার বর্গ ফুট এলাকা জুড়ে প্যান্ডেল বাঁধা হয়েছে। সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজের খতিয়ান তুলে ধরে রাস্তার দু’পাশে হোর্ডিং বসিয়েছে হাওড়া পুর নিগম।

মুখ্যমন্ত্রীর আসা উপলক্ষ্যে শরৎ সদন হল সাজিয়ে তোলা হয়েছে আলো এবং গাছের টব দিয়ে। বুধবার বিকেলে প্রশাসনের আধিকারিকরা শেষ মুহুর্তের প্রস্তুতি খতিয়ে দেখেন। জানা গিয়েছে, এদিনের বৈঠকের মঞ্চ থেকেই বেশ কিছু প্রকল্পের শিলান্যাস এবং কিছু প্রকল্পের সূচনা করবেন মুখ্যমন্ত্রী।

পাশাপাশি, হাওড়া পুর নিগম কর্তৃক আর্কাইভের উদ্বোধন করবেন মুখ্যমন্ত্রী। এছাড়া হাওড়া উন্নয়ন সংস্থা কর্তৃক আরুপাড়া পুলিশ ট্রেনিং অ্যাকাডেমি থেকে হাওড়া রেল গেট পর্যন্ত রাস্তারও উদ্বোধন করা হবে এদিন। সঙ্গে কয়েকটি রাস্তা নির্মাণ প্রকল্প, কোনা জিআইএস সাব স্টেশন, ঘুসুড়ির স্কিম নম্বর ৬-এর পুকুরের সৌন্দর্যায়ন প্রকল্পের শিলান্যাস করার কথা মুখ্যমন্ত্রীর।

----
--