ওয়াশিংটন: ট্রাম্পের রশিয়া-যোগ নিয়ে ফের উঠে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য। পুতিনের সঙ্গে তাঁর ব্যক্তিগত বৈঠকের কোনও তথ্যই প্রকাশ্যে আসেনি। মার্কিন আধিকারিকদের হাতে সেই সংক্রান্ত কোনও রিপোর্টই নেই।

একান্ত আলাপচারিতার কথা কেন গোপন করা হচ্ছে। তা নিয়েই প্রশ্ন তুলেছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম।

আমেরিকার বর্তমান এবং প্রাক্তন সরকারি আধিকারিকরা বলেছেন, ট্রাম্প নাকি তাঁর দোভাষীর নেওয়া তথ্যও চেপে দিয়েছেন। তাদেরও বলা হয়েছে, বৈঠকের বিস্তারিত কিছু না জানাতে। আগের প্রেসিডেন্টদের এই ধরনের আচরণ ছিল না বলেই মন্তব্য করেছে সেখানকার সংবাদমাধ্যম।

২০১৭-তে জার্মানির হামবুর্গের একটি বৈঠক হয়েছিল। যেখানে ট্রাম্পের সঙ্গে ছিলেন প্রাক্তন সেক্রেটারি অফ স্টেট রেক্স টিলারসন। হোয়াইট হাউসের এক পরামর্শদাতা এবং একজন সিনিয়র স্টেট ডিপার্টমেন্ট অফিসিয়াল ট্রাম্পের দোভাষীর কাছ থেকে বাড়তি তথ্য জানতে চেয়েছিলেন। যা কিনা রেক্স টিলারসনের দেওয়া তথ্য থেকেও বেশি। ট্রাম্পের চেষ্টা সম্পর্কে আমেরিকার আধিকারিক জানতেন বলেই দাবি করেছে ওই সংবাদ মাধ্যম।

হোয়াইট হাউসের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, ট্রাম্প রাশিয়ার সঙ্গে সম্পর্কের উন্নতি চায়। ২০১৭-র হামবুর্গের বৈঠকের পর এক বেসরকারি বৈঠকে প্রাক্তন সেক্রেটারি আমেরিকার অন্য আধিকারিকদের ট্রাম্প এবং পুতিনের বৈঠক সম্পর্কে বিস্তারিত জানিয়েছিলেন বলে উল্লেখ করেন ওই মুখপাত্র।

তবে ট্রাম্প বৈঠক সম্পর্কে জানিয়েছেন, দুই প্রেসিডেন্টের বৈঠকে যা আলোচনা হওয়ার কথা তাই হয়েছে। আলোচনা হয়েছে ইজরায়েল নিয়ে। কোনও কিছুই লুকিয়ে রাখার নেই বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

--
----
--