ফাঁস হল দীঘার বিস্ফোরণের রহস্য

স্টাফ রিপোর্টার, দীঘা: ১৪ ডিসেম্বর দীঘায় বিকট শব্দে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। তিন দিনের মাথায় অবশেষে সেই বিকট শব্দের রহস্য উন্মোচন হল।

জানা গিয়েছে, মৎস্যজীবী নিতাই নন্দী এবং চার সঙ্গী মিলে ওডিশার তালসারি থেকে ১৪তারিখ রাতে মাছ শিকারে যায়। তালসারি থেকে ৯০-১০০কিমি যাওয়ার পর মৎস্যজীবীদের জালে লাগে ক্ষেপণাস্ত্রের ধ্বংসাবশেষ।

মৎস্যজীবিরা বড় মাছের চাঁই ভেবে খুব সাবধানে সেটাকে তুলে আনে। ডাঙায় নিয়ে এসে বিষয়টি দীঘা থানায় পুলিকে জানায়। পুলিশ শনিবার বিকেলে ওটাকে উদ্ধার করে তদন্তে নেমেছে।

- Advertisement -

বৃহস্পতিবার দুপুর ১.৪০ মিনিট নাগাদ হঠাৎ বিকট শব্দ হয় দীঘায়। মুহূর্তের মধ্যে কেঁপে ওঠে এই পর্যটন শহর৷ আচমকাই এই শব্দ হওয়ায় পর্যটকেরাও হোটেলের ঘর ছেড়ে রাস্তায় বেরিয়ে আসেন। নিমেষের মধ্যে খবর ছড়িয়ে পড়ে এই শব্দটি ছিল কেবলমাত্র দীঘাতেই হয়েছে৷ তারপরেই আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে পর্যটক মহলে।ওল্ড দীঘা থেকে দীঘা মোহনা পর্যন্ত সমস্ত মানুষের কানে পৌঁছয় বিকট শব্দ।

বিষয়টি জানাজানি হতেই দীঘা ও দীঘা মোহনা থানার পুলিশ শব্দের উৎপত্তিস্থল খোঁজার চেষ্টা করেন। বিভিন্ন গ্রামে পাঠানো হয় সিভিক ভলেন্টিয়ারদের। রাস্তায় নামানো হয় দমকল বাহিনীকে। সেইসঙ্গে দিঘা–শংকরপুর উন্নয়ন পর্ষদ ও দিঘা পুলিশ সমুদ্রে স্নানরত পর্যটকদের সতর্ক করতে মাইকিং শুরু করে। এমনকি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশমত পর্যটকদের সতর্ক করতে বিপদ সংঙ্কেত হিসেবে বাজানো হয় সাইরেন। প্রায় দু–ঘন্টা ধরে সমুদ্র উপকূলীয় এলাকায় তল্লাশি চালিয়েও শব্দের উৎপত্তিস্থলের সন্ধান করতে পারেনি পুলিশ।

সৈকত শহর দীঘায় বিকট শব্দের কারণ ঘিরে রহস্য দানা বেঁধেছে পর্যটন শহরে। আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন পর্যটকরা। গভীর সমুদ্রের দিক থেকে ওই শব্দ আসে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গিয়েছে। খবর পেয়ে দমকলের দু’টি ইঞ্জিন এবং বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের কর্মীরা রাস্তায় নেমে পড়ে। অবশেষে বিকট শব্দের এক সপ্তাহ পর দেখা দেল মৎস্যজীবীদের জালে উঠে এসেছিল ক্ষেপণাস্ত্রের ভাঙা যন্ত্রাংশ।

Advertisement ---
---
-----