দিঘা উপকূলে আছড়ে পড়ল শক্তিশালী সুনামি!

দিঘাঃ  দিনের দুপুরে দিঘা উপকূলে আছড়ে পড়ল সুনামি! হঠাত করে ছোটাছুটি। চলছে মাইকে ঘোষণা। উদ্ধারকাজে ঝাঁপিয়ে পড়ল বিপর্যয় মোকাবিলা দল। প্রায় ঘন্টাখানেক ধরে চলা এই অবস্থায় রীতিমত চমকে গেলেন দিঘার সমুদ্রে স্থান করতে নামা পর্যটকরা। আসলে ব্যাপারটা কি ঘটছে আদৌতে সত্যিই কি সুনামি আসছে? তা বুঝতে সময় লেগে গেল দীর্ঘক্ষণ।

কারণ সুনামি এলে কিভাবে মোকাবিলা করা হবে তা দিঘার উপকূলের মানুষদের মহড়ার মাধ্যমে দেখালেন ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্টের আধিকারিকরা। আর পুরো ব্যাপারটাই যেভাবে তৈরি করা হয়েছিল তা কারোর বোঝার উপায় ছিল না একেবারেই। আর তাই যখন মাইকে ঘোষনা শুরু হয় তা শুনে রীতিমত আতঙ্কিত হয়ে পড়েন বহু মানুষ।

কীভাবে এই মহড়া শুরু হল?

- Advertisement -

আজ বুধবার সকাল ঠিক আটটা থেকে দশটার মধ্যে বেজে উঠল সাইরেন৷ উপকূলবর্তী দিঘার গঙ্গাধরপুর এবং দত্তপুরের সাধারণ মানুষকে নিয়ে যাওয়া হল নিরাপদ দূরত্বের ত্রাণ শিবিরে৷ গবাদি পশুদের রাখা হল আশ্রয় শিবিরে৷ আর এভাবে সুনামি ফিরল ‘মক ড্রিল’-এর চেহারায়৷ ন্যাশনাল ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট অথরিটি এদিন দেশের বিভিন্ন জায়গায় মহড়ার ব্যবস্থা করেছিল৷ রাজ্যে মহড়া হয় পূর্ব মেদিনীপুর , উত্তর ও দক্ষিণ পরগনার মোট সাত জায়গায়৷ গত বছরও এই ধরনের মহড়া দেখেছিলেন উপকূলের মানুষ।

যদিও আগে থেকে কিছু কাউনে না জানিয়েই এই মহড়া করা হয়। আসলে বিপর্যয় মোকাবিলা দলের এই মহড়ার উদ্দেশ্যই হল যে কোনও দিন যদি সত্যিই হঠাত সুনামি সতর্কতা জারি হয় কিংবা সুনামি আসছে বলে কোনও পূর্বাভাস আসে তাহলে কতটা দ্রুত সমুদ্র উপকূলে থাকা সাধারণ মানুষকে নিরাপদে সরানো যাবে তা দেখে নেওয়া।

Advertisement ---
---
-----