কাবুল: আমেরিকার ড্রোন হানায় খতম তেহরিক-ই-তালিবান-পাকিস্তান(টিটিপি) নেতা মোল্লা ফজল উল্লা। মার্কিন সেনাবাহিনীর বক্তব্যকে উদ্ধৃত করে এই সংবাদ পরিবেশন করেছে ভয়েস অফ আমেরিকা।

ওই প্রতিবেদনে মার্টিন ও’ডনেলের বক্তব্য উল্লেখ করা হয়েছে। এবং সেখানে বলে হয়েছে যে চলতি মাসের ১৩ তারিখে আমেরিকার সেনাবাহিনীর বিশেষ অভিযানে খতম করা হয়েছে টিটিপি নেতা মোল্লা ফজল উল্লাকে।

- Advertisement -

২০০৭ সালে যাত্রা শুরু করেছিল তালিবানি জঙ্গি সংগঠন টিটিপি। ওই মোল্লা ফজলের নেতৃত্বে অনেক বড় বড় নাশকতা মূলক কাজ করেছে টিটিপি। পালটা প্রত্যাঘাতের মুখে পরেও পুরোপুরি দমানো যায়নি এই সন্ত্রাসবাদী সংগঠনকে।

টিটিপি-র মূল লক্ষ্য ছিল আমেরিকা এবং পাকিস্তান। আমেরিকার মাটিতে পা রাখতে না পারলেও পাকিস্তান বা আফগানিস্তানে থাকা আমেরিকার সেনাবাহিনীর অনেক সদস্য টিটিপি-র নিশানায় পড়েছিল। ২০১৪ সালের ডিসেম্বর মাসে পাকিস্তানের পেশোয়ারে সেনা স্কুলে যে হামলা হয়েছিল তা এই টিটিপি ঘটিয়েছিল। ওই হামলায় প্রাণ গিয়েছিল ১৫১ জনের। যার মধ্যে ১৩০ জনই ছিল শিশু। সেই হামলার নেতৃত্বে ছিল মোল্লা ফজল উল্লা।

২০১২ সালে নোবেল জয়ী মালালা ইউসুফজাইয়ের উপরে যে হামলা হয়েছিল তার পিছনেও বড় হাত ছিল এই মোল্লা ফজলের। মার্কিন গোয়েন্দা বিভাগের কাছে আসা তথ্য অনুসারে মোল্লা ফজলের নির্দেশেই টিটিপি জঙ্গিরা মালালার উপরে হামলা চালিয়েছিল।

চলতি বছরেই আমেরিকার সেনাবাহিনীর হাতেই মৃত্যু হয় মোল্লা ফজলের ছেলের। একইরকম ড্রোন হামলাতেই প্রাণ গিয়েছিল টিটিপি কর্তার পুত্রের। এরপরে মার্চ মাসে আমেরিকার পক্ষ থেকে মোল্লা ফজলের মাথার দাম ঘোষণা করা হয় পাঁচ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

ভয়েস অফ আমেরিকার প্রতিবেদন অনুসারে, গত বুধবার পাকিস্তান সীমান্ত লাগোয়া আফগানিস্তানের কুনার প্রদেশে আমেরিকার সেনার ড্রোন হামলায় মোল্লা ফজল উল্লার মৃত্যু হয়েছে। যদিও এখনও পর্যন্ত আমেরিকার পক্ষ থেকে সরকারিভাবে এই খবরের সত্যতা স্বীকার করা হয়নি।

----