স্টাফ রিপোর্টার, বর্ধমান: টইটুম্বুর খড়ি নদীর ধারে ছোট্ট ভাইকে নিয়ে বেড়াতে গিয়ে জলস্রোতে তলিয়ে গেল দুই শিশু। মর্মান্তিক এই ঘটনা ঘটেছে বর্ধমানের দেওয়ানদিঘী থানার গোপালপুরে।

গ্রামবাসী সূত্রে জানা গিয়েছে, মামাতো ভাই আড়াই বছরের কাজি আহিলকে নিয়ে বেড়াতে বেরিয়েছিল ছোট্ট সেখ রিয়াজউদ্দিন (১১)। আহিলের বাড়ি পশ্চিম বর্ধমানের জামুড়িয়ার হিজলগড় এলাকায়।

Advertisement

আরও পড়ুন: সেলসম্যান সেজে বাড়ি ঢুকে ছিনতাই সল্টলেকে

মায়ের সঙ্গে সে এসেছিল পিসির বাড়িতে বেড়াতে। পিসতুতো দাদা এগারো বছরের সেখ রিয়াজউদ্দিন ছোট্ট মামাতো ভাইকে নিয়ে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টা নাগাদ বেরিয়েছিল খেলার ছলে। কিন্তু আর তাদের বাড়ি ফেরা হয়নি।

গ্রামবাসীরা জানিয়েছেন, দুপুর থেকেই নিখোঁজ দুই শিশুর হদিশ পেতে শুরু হয় ব্যাপক খোঁজাখুঁজি। এরই মাঝে গ্রামেরই এক বাসিন্দা জানান, ওই দুই শিশুকে তিনি গোপালপুরে খড়ি নদীর কাছে দেখেছেন। আর এরপরেই বৃহস্পতিবার রাতে খড়ি নদীতে তল্লাশি চালায় জেলা বিপর্যয় মোকাবিলা বিভাগের ডুবুরিরা। খবর দেওয়া হয় পশ্চিম বর্ধমানের ডুবুরিদেরও।

আরও পড়ুন: শ্রাবণ থেকে আশ্বিন, ব্যাপক বৃষ্টিতে ভিজবে বাংলা

সেখান থেকে চারজনের একটি দল এসে পৌঁছায় গোপালপুরে। রাত প্রায় ১০ টা পর্যন্ত চলে খড়ি নদীতে তল্লাশি। কিন্তু রাতে কোনও দেহ উদ্ধার হয়নি। এরপর ফের শুক্রবার সকাল থেকেই ডুবুরির দল তল্লাশি চালাতে শুরু করে। আর তারপরেই গোপালপুর থেকে প্রায় আড়াই কিমি দূরে পারহাট ঘাটের কাছ থেকে উদ্ধার হয় সেখ রিয়াজ উদ্দিনের দেহ। এদিন বিকেল পর্যন্ত সন্ধান মেলেনি ছোট্ট আড়াই বছরের কাজি আহিলের।

আরও পড়ুন: সন্তানের ছবি প্রকাশ্যে এনে চমকে দিলেন এই বলি অভিনেত্রী

----
--