ছত্তিশগড়ে আইইডি বিস্ফোরণে আহত দুই জওয়ান

ফাইল ছবি

রায়পুর: ফের বিস্ফোরণ ছত্তিশগড়ে৷ ছত্তিশগড়ের রাজনন্দগাঁও জেলায় এই বিস্ফোরণ ঘটে৷ একটি বোতা মাটির ভিতর পুঁতে রেখেছিল মাওবাদীরা বলে অভিযোগ৷ চাপ পড়তেই সেটি সশব্দে ফেটে যায়৷
এই বিস্ফোরণে দুজন আইটিবিপি জওয়ান আহত হয়েছেন৷ তাদের স্থানীয় হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে৷ ইন্দো টিবেটান বর্ডার পুলিশ বা আইটিবিপি মিস্ত্রী গ্রামের কাছে তল্লাশি অভিযান চালাচ্ছিল৷ সেই সময়েই এই বিস্ফোরণ ঘটে৷ তীব্রতা বেশি না থাকায় ক্ষতির পরিমাণ বেশি নয়৷ তবে এই ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে৷

৭২ তম স্বাধীনতা দিবসের নিরাপত্তা ব্যবস্থা খতিয়ে দেখতে, এই তল্লাশি ও নজরদারি অভিযান চলছিল বলে খবর৷ সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে দেওয়া সাক্ষাতকারে রাজনন্দগাঁওয়ের পুলিশ সুপার কমলোচন কাশ্যপ বলেন একটি পেট্রোলিং টিম ঘুরে বেড়াচ্ছিল৷ আচমকাই বিস্ফোরণ ঘটে৷ গ্রামের লাগোয়া জঙ্গলে ঘুরছিল তাঁরা৷ রায়পুর থেকে প্রায় ১৫০ কিমি দূরে এই ঘটনা ঘটেছে৷ মাটিতে পা রাখতেই বিস্ফোরণ হয়৷ আহত হন দুই জওয়ান৷

বিস্ফোরণের ধরণ দেখে পুলিশ সুপার জানিয়েছে এটি আইইডি বিস্ফোরণ৷ বোমার স্ল্প্রীন্টারের আঘাতে চোট পেয়েছেন আইটিবিপি-র ৪৪ নম্বর ব্যাটেলিয়ানের ওই দুই সদস্য৷ তড়িঘড়ি তাদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷ প্রাথমিক চিকিৎসার পর তাদের রাজনন্দগাঁও হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷ এলাকায় চিরুণি তল্লাশি চলছে৷

এর আগে বিশে মে ফের নাশকতার ঘটনা ঘটে ছত্তিশগড়ে। আইইডি বিস্ফোরণে মৃত্যু হয় ৬ জওয়ানের। গুরুতর জখম অবস্থায় ১ জওয়ানকে দান্তেওয়াড়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। নকশালরা এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত বলে সন্দেহ করা হয়৷ ঘটনাটি ঘটেছে ছত্তিশগড়ের দান্তেওয়াড়া জেলার চোলনার গ্রামে। ২৯ জওয়ানের একটি দল ওড়িশা সীমান্তের কাছে ওই গ্রামে এক জনকল্যাণমূলক অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন। রবিবার ফেরার সময় বিস্ফোরণ ঘটে। ছত্তিশগড় আর্মড ফোর্সের তিন জওয়ান ও ছত্তিশগড় জেলা পুলিশের তিন জওয়ান ঘটনাস্থলেই মারা যান।

বোমা বিষ্ফোরণের পরে নকশালরা তাঁদের ওপর গুলিও চালায় বলে জানা গিয়েছে। ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন ছত্তিশগড়ের মাওবাদী দমন শাখার ডিআইজি সুন্দর রাজ পি। আরও কোথাও বোমা রাখা আছে কি না খতিয়ে দেখছে তারা। এর আগেও ২ মে ছত্তিশগড়ের গারিয়াবাদ জেলায় আইইডি বিস্ফোরণে ২ জওয়ানের মৃত্যু হয়। বারবার এই ধরণের নাশকতামূলক কার্যকলাপে চিন্তিত প্রশাসন।

Advertisement
----
-----