পর পর ভেঙে পড়ল ২ বিমান, নিহত ২৩

ফাইল ছবি (প্রতীকী)

বার্ন: একঘন্টার মধ্যেই পর পর ভেঙে পড়ল দুটি বিমান৷ নিহতের সংখ্যা মোট ২৩৷ স্থানীয় সময় অনুযায়ী শনিবার রাতে সুইস আল্পসে এই ঘটনা ঘটে৷ জঙ্গলের মধ্যে একটি ছোট বিমান ভেঙে পড়ে, এতে একই পরিবারের ৪জন প্রাণ হারায়৷ স্থানীয় সূত্রের খবর, পরের বিমানে যাত্রী সংখ্যা ছিল ১৭, সঙ্গে দুজন পাইলট৷

ট্যুইটারে পুলিশ জানিয়েছে, পাঁচটি হেলিকপ্টার এবং উদ্ধারকারী দল ইতিমধ্য়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছে গিয়েছে৷ পিজ সেগনাসের পশ্চিমে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে৷

পড়ুন: হেলিকপ্টার দুর্ঘটনার কবলে পড়ে মৃত ১৮

- Advertisement -

স্থানীয় সংবাদ পত্রের খবর অনুযায়ী, বিমানে থাকা সব যাত্রীরাই প্রাণ হারায়৷ দ্বিতীয় বিমান ভেঙে পড়ার এক ঘন্টা আগেই নিডওয়ালডেনের ক্যান্টনে রেং মাউন্টেন পাস এলাকায় এককটি ছোট বিমান ভেঙে পড়ে যায় জঙ্গলের মধ্য়ে৷ দুই শিশু সহ তাদের বাবা-মা, মোট ৪জনই নিহত হয় এই দুর্ঘটনায়৷

এদিকে, গত ৪ অগস্টেই হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান ১৮ জন৷ রাশিয়ার পরিবহণ মন্ত্রক সূত্রে খবর এদিন ভোরবেলা ‘এম আই-৮ ‘ হেলিকপ্টারটি উত্তর সার্বিয়ার একটি তেল স্টেশনে ধাক্কা মারে। ঘটনায় ৩ পাইলট সহ ১৫ জন যাত্রী নিহত হয়েছে।

পড়ুন: মহাশূন্য থেকে ফের এসে পৌঁছল রহস্যময় রেডিও সিগন্যাল

স্থানীয় প্রশাসন জানায়, উড়ানের কিছুক্ষণ পরই অন্য একটি জ্বালানিবাহী বিমানের সঙ্গে সংঘর্ষ হয় ‘এম আই-৮ ‘ এর৷ আবহাওয়া স্বাভাবিক থাকার কারণে অন্য বিমানটি অক্ষত অবস্থায় অবতরণ করতে পারে৷

পরিবহণ মন্ত্রক জানায় এম আই-৮ এর প্রথম উড়ান সফল হয়৷ সেইবার কিছু জাহাজের পণ্য সামগ্রী নিয়ে বিমানটি যাত্রা করেছিল, তাতে কোনও যাত্রী ছিলেন না। এবার ছিল দ্বিতীয় উড়ান৷ আর সেখানেই ঘটে বিপত্তি৷ একটি তেল স্টেশনের কর্মীদের নিয়ে যাত্রা করেছিল হেলিকপ্টারটি৷ প্রাথমিক তথ্যের ভিত্তিতে তারা বলেন, এটি ভেঙে পড়ার পর এতে আগুন লেগে যায়৷ হেলিকপ্টারটি রাশিয়ান ন্যাশানাল এয়ারলাইন ইউ ট্যায়ারের দ্বারা পরিচালিত হত৷ যার প্রধান অফিস পশ্চিম সার্বিয়ার কান্তি মান্সিয়াক বিমানবন্দর৷

Advertisement ---
---
-----