২০২০ সালের মধ্যেই লুপ্ত হয়ে যাবে বহু বন্যপ্রাণী: রিপোর্ট

পশুপ্রেমীদের জন্য দুঃখের খবর৷ ২০২০ সালের মধ্যে পৃথিবীর বুক থেকে মুছে যাবে বহু বন্যপ্রাণী৷ ওয়ার্ল্ড ওয়াইল্ড লাইফ ফান্ডের ২০১৬-র লিভিং প্ল্যানেট রিপোর্ট এই তথ্যই দিচ্ছে৷

এদের রিপোর্ট বলছে, অত্যধিক মাত্রায় মানবজাতির বংশবৃদ্ধিই বেশিরভাগ বন্যপ্রাণী অবলুপ্ত হয়ে যাওয়ার প্রাথমিক কারণ৷ মানুষের সংখ্যা বাড়ার কারণেই পশুদের আবাসস্থল ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে৷ মানবজাতির বাসস্থানের জন্য জায়গা করে দিতে গিয়ে তাদের নানা অত্যাচারও সহ্য করতে হয় প্রতিনিয়ত৷ এই রিপোর্টের বক্তব্য অনেকাংশেই এ রকম৷

রিপোর্ট অনুযায়ী পৃথিবীতে কার্বন ডাই অক্সাইডের পরিমাণ যে হারে বাড়ছে তার প্রভাবেও পশুদের পক্ষে সুস্থভাবে বেঁচে থাকাটা দায় হয়ে উঠেছে৷ আরও উদ্বেগের পৃথিবীতে কার্বন ডাই অক্সাইড উৎপাদনে ভারতের স্থান এখন পঞ্চম৷ ওয়ার্ল্ড ওয়াইল্ড লাইফ ফান্ডের জেনারেল সেক্রেটারি রবি সিং জানিয়েছেন, এই পরিস্থিতিতে আমাদের এমনভাবে কাজ করা উচিত যাতে পরিবেশের সঙ্গে অর্থনৈতিক এবং সামাজিক পরিকাঠামোর একটা সামঞ্জস্য থাকে৷

- Advertisement -

রিপোর্টে জানা গিয়েছে, মাত্র পঞ্চাশ বছরের মধ্যেই পৃথিবী থেকে ৪১ শতাংশ মানবেতর স্তন্যপায়ী, ৭ শতাংশ পাখি, ৪৬ শতাংশ সরীসৃপ, ৫৭ শতাংশ উভচর এবং ৭০ শতাংশ জলজ প্রাণী, বিশেষ করে মাছ বিলুপ্ত হয়ে গিয়েছে৷

রিপোর্ট থেকে এমন তথ্যও মিলছে যে, এই সময়কালের মধ্যে বনাঞ্চলের পরিমাণও হু হু করে কমে গিয়েছে৷ আগে যেখানে পৃথিবীর ৩৩ শতাংশ ভূখণ্ডে ছিল বনভূমি, এখন তা কমে দাঁড়িয়েছে ২৩ শতাংশে৷ জীবজন্তু লুপ্ত হয়ে যাওয়ার এও অন্যতম প্রধান কারণ বলে এই রিপোর্ট জানিয়েছে৷

Advertisement ---
---
-----