পরামর্শের সুরে মিডিয়াকে প্রচ্ছন্ন হুমকি মমতার

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: ‘তিনি শুধু বাংলার দিদি নন৷ যাঁরা প্রতিনিয়ত তাঁর বিরুদ্ধে কলমে আগুন ঝরান, তিনি তাঁদেরও দিদি৷’ হাওড়ার ডুমুরজোলায় দলীয় ছাত্র-যুবার সমাবেশ থেকে এমনই জোরালো দাবি করলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

মনে করিয়ে দিলেন, ‘‘আমরা বিরুদ্ধে তোমরা যতখুশি লেখো৷ কিন্তু মনে রাখবে- মালিক তাড়িয়ে দিলে, বিপদে পড়লে তোমাদের দেখবে কিন্তু এই দিদিই!’’ অভয় দিলেন, ‘‘মনে রাখবেন আপনাদের দিদি অতটা খারাপ লোক নয়৷ কেউ বিপদে পড়লে আমি তাঁর সঙ্গে আছি৷’’ পরামর্শ দিলেন- ‘‘নিউজ করো, কিন্তু ভিউজ দিও না!’’

দাবি করলেন, ‘‘রাজ্যে ভেজাল খাবার দোকানের মতো ভেজাল খবরও আছে৷’’ পরক্ষণেই স্বতস্ফূর্তভাবে বললেন, ‘‘সাংবাদিকদের অবশ্য কি আর দোষ আছে৷ ওদের মালিক যে রকম বলে ওঁরা তো সেরকম খবর করতেই বাধ্য হয়৷’’ প্রচ্ছন্ন হুমকির সুরে বললেন, ‘‘কারও গ্যাস খেয়ে উলটো পালটা লেখো না৷ কারণ, গ্যাস শেষ হয়ে গেলে তুমিও পড়ে যাবে৷ তাই সত্য খবর লেখো৷’’

- Advertisement -

পরক্ষণেই হুঁশিয়ারি দিলেন, ‘‘এটা জানিয়ে রাখি- যত বিরুদ্ধেই লেখো না কেন, আমাকে তোমরা টাচও করতে পারবে না৷ কারণ, আমি জানি আমি নিজে কি৷ আমি না চাইলে আমার ক্ষতি কেউ করতে পারবে না৷ আমি মানুষের জন্য নিয়োজিত৷ আমি মরে গেলেও তৃণমূল উঠে যাবে না! সেজন্য আমি তৃণমূলের আগামী ৫০ বছরের জেনারেশন তৈরি করে যাব৷’’

৪১ মিনিটের ভাষণে মিডিয়ার জন্য আলাদা করে মিনিটে সাতেক বক্তব্য রাখলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ শুধুই গালিগালাজ নাকি প্রচ্ছন্ন হুমকি দিয়ে রাখলেন রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান, আপাতত তা নিয়েই জোর জল্পনা রাজনৈতিক কারবারিদের মধ্যে৷

Advertisement ---
---
-----