মাওবাদী সন্ধানে এবার আকাশে ড্রোন অভিযান

নয়াদিল্লিঃ   মাওবাদীদের ডেরার সন্ধানে এবার ড্রোনের সাহায্য নেবে কেন্দ্র৷ সোমবার কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে মাও অধ্যুষিত রাজ্যগুলির মুখ্যমন্ত্রী ও শীর্ষ আধিকারিকদের বৈঠকে একথা ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং৷

গত ২৪ এপ্রিল ছত্তিশগড়ে মাওবাদী হামলায় ২৫ জন আধাসামরিক বাহিনীর জওয়ান শহিদ হন৷ এর ২ সপ্তাহের মধ্যেই মাও সমস্যার নিয়ে এই উচ্চপর্যায়ের বৈঠকের  আহ্বান করেন রাজনাথ সিং৷ তিনি জানান, গত ২০ বছরে বিভিন্ন সময় মাওবাদীদের হামলায় প্রায় ১২,০০০ মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন৷ মাওবাদীদের হাতে অর্থের জোগান বন্ধ করার বিষয়ে জোড় দিয়েছেন রাজনাথ সিং৷

এই গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে মাওবাদীদের বিরুদ্ধে কেন্দ্রীয় অভিযানের বেশ কয়েকটি নতুন পন্থার কথা জানিয়েছেন রাজনাথ সিং৷ তিনি জানিয়েছেন, জঙ্গল বা পাহাড়ের গোপন আস্তানা থেকে মাওবাদীদের খুঁজে বের করতে এবার থেকে চালক-বিহীন উড়ন্ত যান বা ড্রোনের সাহায্য নেওয়া হবে৷ ড্রোনের সাহায্য দুর্গম এলাকা থেকে গোয়েন্দাদের কাছে অনায়াসেই পৌঁছে যাবে মাও ঠিকানার হদিস৷ ফলে আরও সংগঠিত ও জোরদার ভাবে মাওবাদীদের বিরুদ্ধে অভিযান সম্ভব হবে৷

- Advertisement -

উচ্চপর্যায়ের এই  বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন মাওবাদী অধ্যুষিত ১০ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী সহ শীর্ষ আধিকারিক, জেলা শাসক, পুলিশ সুপার ও গোয়েন্দা কর্তারা৷ যদিও বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন না পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কে সি রাও এবং অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডু৷

কিছুদিনের মধ্যেই মাও অধ্যুষিত এলাকায় বাহিনীর হাতে তুলে দেওয়া হবে উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন ড্রোন৷ ঝাড়খন্ড, ছত্তিশগড়ের মাও অধ্যুষিত দুর্গম এলাকায় আকাশে উড়বে ড্রোন৷ সমস্ত মাও ঘাঁটি ও মাওবাদীদের কার্যকলাপ বন্দী হবে ড্রোনের ক্যামেরায়৷ পরে এই ক্যামেরার ছবি দেখে মাওঘাঁটি আক্রমণ করবে বাহিনী৷ পরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে মাওবাদীরের নিন্দা করে জানান, ‘‘আমি নিশ্চিত, বন্ধুকের নলের মুখে গণতন্ত্রের আঘাত বা উন্নয়নের প্রক্রিয়াকে থামিয়ে দেওয়ার এই প্রয়াস কখনোই সফল হবে না’৷

Advertisement ---
---
-----