গঙ্গার বুকে ভাসল শিক্ষাশ্রী

স্টাফ রিপোর্টার, হাওড়া: নদীবক্ষে যাত্রী পরিষেবা বাড়াতে নতুন জলযানের পথ চলা শুরু হল৷ চালু করল রাজ্য পরিবহন দফতর৷ শুক্রবার দুপুরে হাওড়া জেটি থেকে এই পরিষেবার সূচনা করেন রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী৷

এমভি শিক্ষাশ্রী নামের এই জলযানটি প্রায় ৪০০ যাত্রী বহন করার ক্ষমতাসম্পন্ন৷ পশ্চিমবঙ্গ পরিবহন নিগম ১ কোটি ৯৭ লক্ষ টাকা ব্যয় করেছে এই জলযানটির জন্য৷

আরও পড়ুন: অমিত শাহ-র সভা উপলক্ষে কি কংগ্রেস ভাঙছে? কানাঘুষো দলেই

- Advertisement -

শুক্রবার হাওড়া থেকে মিলেনিয়াম পার্ক রুটে সাধারণ যাত্রীদের সঙ্গেই এই জলযানে সফর করেন মন্ত্রী ও অন্যান্য আধিকারিকরা৷ সর্বাধিক ৯ নটিকাল মাইল গতিসম্পন্ন অত্যাধুনিক সুবিধাযুক্ত৷ এই জলযানটিতে একসঙ্গে অনেকে সফর করতে পারবেন৷ ফলে কম সময়ে অধিক যাত্রী যাতায়াতের সুবিধাও পাওয়া যাবে৷

এই জলযানের তিনতলায় একটি বাতানুকূল ঘরও থাকছে৷ সঙ্গে দোতলায় ১৭০ জন থেকে ২০০ জনের বসার ব্যবস্থাও৷ কোনও অনুষ্ঠান করতে চাইলে থাকছে ছোটখাটো একটি মঞ্চও৷ পরিবহন নিগমের যে ময়ূরপঙ্খী গঙ্গাবক্ষে ভেসে বেড়ায় শিক্ষাশ্রী অনেকটা তারই মত৷ জলপথে ভ্রমণ, সঙ্গে বিনোদনের সবরকম ব্যবস্থা থাকছে এই শিক্ষাশ্রীতে৷

আরও পড়ুন: লোকসভার সঙ্গে বিধানসভাতেও আসন সমঝোতা চেয়ে NDA কে চাপ নীতীশের

এদিনের অনুষ্ঠানে পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারি ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত মুখ্য সচিব আলাপন বন্দোপাধ্যায়, পশ্চিমবঙ্গ পরিবহন নিগমের এমডি নারায়ণ স্বরূপ ও অন্যান্য আধিকারিকরা৷ এই জলযানটি যাত্রী পারাপারের কাজ ছাড়াও নদীপথে ভ্রমণের কাজেও ব্যবহার করা যাবে৷ এছাড়াও বিভিন্ন অনুষ্ঠানের জন্যও এই জলযানটি কেউ চাইলে ব্যক্তিগত ভাবে ভাড়াও নেওয়া যাবে বলে সরকারি সূত্রে জানানো হয়েছে৷

এছাড়া গঙ্গায় হাউসবোট চালানোর পরিকল্পনাও রয়েছে রাজ্যসরকারের৷ ইতিমধ্যে নামও ঠিক করা হয়েছে৷ একটির নাম রাখা হবে গঙ্গোত্রী, অন্যটির নাম হচ্ছে জলশ্রী৷ মুকুটমনিপুরের বনপুকুরিয়াতেও চলবে হাউসবোট৷ নাম রাখা হয়েছে মুকুটিয়া৷

আরও পড়ুন: তীব্র জলসঙ্কটে ভুগছে জঙ্গলমহল

Advertisement ---
---
-----