লন্ডনঃ  পুরো মোড় ঘুরে যেতে পারে শিল্পপতি বিজয় মালিয়ার প্রত্যর্পণ মামলা। কারণ, আজ সোমবার ওয়েস্টমিনস্টার ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে উঠতে চলেছে সেই মামলাটি। কোর্টে হাজিরা দেবেন প্রাক্তন কিংফিশারকর্তা মালিয়া স্বয়ং। ভারতের দাবি ও আইনি প্রক্রিয়ায় বিচারক সন্তোষ প্রকাশ করলে মামলাটি যাবে ব্রিটেনের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকে। গত বছরের এপ্রিল থেকে সংশ্লিষ্ট মামলায় জামিনে মুক্ত রয়েছেন তিনি।

গত বছরের ৪ ডিসেম্বর থেকে মালিয়া ফিরবে কিনা তা নিয়ে শুনানি চলছে ম্যাজিস্ট্রেটে। সেখানে সাতদিন ধারাবাহিকভাবে শুনানি চলেছে। আইনজীবী মার্ক সামার্সের নেতৃত্বাধীন ‘ক্রাউন প্রসিকিউশন টিম’ (সিপিএস) মালিয়ার বিরুদ্ধে ভারত সরকারের প্রতারণা ও অর্থ তছরুপের বিষয়টি আদালতে পেশ করেছিল। সেখানে মানবাধিকার প্রশ্নে মালিয়াকে প্রত্যর্পণ করতে কোনও বাধা নেই জানিয়ে প্রতারণার বিষয়টি প্রতিষ্ঠা করতে চেয়েছিলেন সামার্স। কিন্তু মালিয়ার আইনজীবী দল জানায়, প্রতারণা নয়, ব্যবসায় লোকসান হওয়ায় কিংফিশার এয়ারলাইন্সের জন্য নেওয়া ঋণ পরিশোধ হয়নি।

আদালতকে মালিয়ার আইনজীবী ক্লেয়ার মন্টগোমারি আরও বলেন, ২০১৬ সালে মূল ঋণের ৮০ শতাংশ ফেরৎ দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছিলেন মালিয়া। কিন্তু, এসবিআই নেতৃত্বাধীন ভারতীয় ব্যাংকের কনসর্টিয়াম সেই আর্জি খারিজ করেছিল।

শুধু তাই নয়, ভারতের সংশোধনাগারগুলির বেহাল অবস্থার কথা উল্লেখ করে মক্কেলের প্রত্যর্পণের বিরোধিতা করেছিলেন তাঁর আইনজীবী। সেইমতো মুম্বইয়ের আর্থার রোড জেলের ১২ নম্বর বারাকের ভিডিও চেয়েছিলেন বিচারক। সোমবার ভারত সরকারের আইনজীবীর যাবতীয় পদ্ধতিতে বিচারক সন্তোষ প্রকাশ করলে মালিয়ার প্রত্যর্পণ মামলাটি ব্রিটেনের স্বরাষ্ট্রসচিবের কাছে পাঠিয়ে দিতে পারেন বিচারক বলে জানিয়েছেন লন্ডনের আইনি সহায়তা প্রদানকারী সংস্থা ‘জাইওয়ালা অ্যান্ড কোং’য়ের পাবনী রেড্ডি। তখন মালিয়াকে প্রত্যর্পণ করতে ১৪ দিনের মধ্যে আবার ভারতকে হাইকোর্টে আবেদন জানাতে হবে।