মুখ্যমন্ত্রীর কাছে সরকারি চাকরির আবেদন ইরাকে নিহতের স্ত্রীয়ের

নদিয়া: মসুলে স্বামীর মৃত্যুর পর যথেষ্ট আর্থিক সমস্যায় পড়েছেন দিপালী ঠিকাদার৷ পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করতে চান৷ মুখ্যমন্ত্রীর কাছে সরকারি চাকরির আবেদন জানাবেন তিনি৷

২০১৪ সালে আইএস জঙ্গিদের হাতে অপহৃত হন ৪০ জন ভারতীয়৷ তাঁদের মধ্যে একজন কোনওক্রমে পালিয়ে আসতে সক্ষম হন৷ বাকিদের সম্প্রতি মৃত বলে ঘোষণা করেছে ভারত সরকার৷ তাঁদের মধ্যে একজনের শনাক্তকরণ এখনও সম্ভব হয়নি৷ বাকি ৩৮ জনের শনাক্তকরণ হয়ে গিয়েছে৷ তাঁদেরই মধ্যে একজন পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা৷ নাম সমর ঠিকাদার৷ তাঁর মৃত্যুর খবর পাওয়ার পর থেকেই কান্নায় ভেঙে পড়েছেন স্ত্রী দিপালী৷ স্বামীর মৃত্যুর পাশাপাশি তাঁর আর এক চিন্তা ২ সন্তানকে নিয়ে৷ দিপালী

এতদিন ভাবতেন, ইরাক থেকে ফিরবেন তাঁর স্বামী৷ আর্থিক অবস্থা ফিরবে৷ গত ৪ বছর এমন অবস্থার মধ্যেই কাটিয়েছেন তিনি৷ এবার যখন স্বামীর মৃত্যুর খবর সামনে এসে পড়েছে, চিন্তায় পড়েছেন তিনি৷ ২ সন্তানকে মানুষ কীভাবে তিনি মানুষ করবেন, আপাতত এই চিন্তাই তাঁর মাথায় চেপে বসেছে৷ “ভেবেছিলাম সময় ফিরলে আমাদের কষ্ট ঘুচবে৷ কিন্তু এখন আমি জানি না জীবন থেকে আমি কী আশা করব৷” বলেছেন দিপালী৷

- Advertisement -

সমর ও দিপালীর ছেলে সুদীপ মাধ্যমিকের প্রস্তুতি নিচ্ছে৷ মেয়ে শর্মিষ্ঠা ক্লাস ৪-এ পড়ে৷ দিপালী বলেছেন, “আমি সরকারি চাকরি চাই৷ তাহলে আমি আমার ছেলেমেয়েদের পড়াশোনা চালিয়ে যেতে পারব৷ শিশু উন্নয়নের কাজ করে আমি মাত্র ৪ হাজার ৮০০ টাকা পারিশ্রমিক পাই৷ পরিবার চালানোর জন্য এই টাকা যথেষ্ট নয়৷ প্লিজ আমাকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করার সুযোগ করে দিন৷”

অবস্থা যে খুব একটা ভালো নয়, তা স্পষ্ট দিপালীর কথায়৷ তিনি বলেন, যদি বিমানবন্দরে তাঁর স্বামীর দেহ আসে, তা তিনি আনতেও যেতে পারবে না৷ পরিস্থিতি এতটাই খারাপ৷ ছেলেমেয়ের চিন্তায় দিশাহারা তিনি৷

২০১১ সালে ইরাক যান সমর৷ ২০১৪ সালে তাঁর পরিবারের কাছে খবর আসে ইরাকে সমরকে আইএস জঙ্গি অপহরণ করেছে৷ ৪ বছর পর, মাত্র ১০ দিন আগে বিদেশমন্ত্রী ভিকে সিং জানান ইরাকে অপহৃত হওয়া ৩৯ জন ভারতীয়কে হত্যা করেছে আইএস জঙ্গিরা৷

Advertisement ---
---
-----