চার কিমি হেঁটে শৌচালয়ে যান হোস্টেলের মেয়েরা

সৌজন্যে এএআই

ভোপাল: হোস্টেলে শৌচালয় আছে অথচ জল নেই৷ তাই নিত্যকর্মের জন্য বাইরের শৌচালয় ভরসা৷ হোস্টেল থেকে নিকটবর্তী শৌচালয়ের দুরত্ব কত? মাত্র চার কিলোমিটার৷ বালতি হাতে প্রতিদিন কিলোমিটারের পর কিলোমিটার ধু ধু প্রান্তর পথ পেরিয়ে শৌচালয়ে যান হোস্টেলের মেয়েরা৷ এখন এই চার কিলোমিটার পথ গা সওয়া হয়ে গিয়েছে তাদের৷

নামেই সরকারি হোস্টেল৷ কিন্তু সেখানে পর্যাপ্ত জলের ব্যবস্থাটুকুও নেই৷ তাই উপায়ন্তর না দেখে প্রতিদিন কয়েক কিলোমিটার পথ পেরিয়ে শৌচালয়ে যান তাঁরা৷ ঘটনাটি বিজেপি শাসিত মধ্যপ্রদেশের ডামোহ জেলায়৷ জলের অভাবে প্রতিদিন নিত্যকর্ম সারতে হোস্টেলের আবাসিকদের ভরসা চার কিলোমিটার দুরের ওই শৌচালয়৷ তবে শুধু ওই হোস্টেলে নয়, জলের অভাবে ভুগছে ডামোহ জেলার একাংশ৷

হোস্টেলের পাশে দুটি কুয়ো রয়েছে৷ তাতে কিছুটা জলের সমস্যার সুরাহা হয় ঠিকই৷ কিন্তু গরম পরতেই এখন কুয়োর জল শুকিয়ে গিয়েছে৷ হোস্টেলের ওয়ার্ডেন জানিয়েছেন, ‘‘প্রত্যেক গরমে কুয়োর জল শুকিয়ে যায়৷ তখন ট্যাঙ্ক থেকে হোস্টেলে জল সরবরাহ করা হয়৷ কিন্তু এবছর সেটাও করা হয়নি৷ ফলে হোস্টেলে তীব্র জলসঙ্কট শুরু হয়েছে৷ অগত্যা মেয়েদের রোজ বাইরের শৌচালয়ে যেতে হয়৷’’

- Advertisement DFP -

স্থানীয় প্রশাসনও বিষয়টি সম্পর্কে অবগত৷ জেলা শাসক জানিয়েছেন, বিষয়টি তিনি উচ্চতর কর্তৃপক্ষের গোচরে এনেছেন৷ কিন্তু এখনও পর্যন্ত কোনও সমাধানসূত্র মেলেনি৷ সংবাদসংস্থা এএনআইকে তিনি জানিয়েছেন, ‘‘এ বছর জলের অভাব দেখা দিয়েছে৷ আমরা সবরকম ভাবে সমস্যার সমাধানের চেষ্টা করছি৷ উচ্চতর কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে৷ নিশ্চয়ই কোনও সমাধানসূত্র বেরবে৷’’

Advertisement
----
-----