স্টাফ রিপোর্টার, তমলুক: গর্ভবতী মেয়ের জন্য বাবার জমানো শেষ সম্বলটুকুও চুরি হয়ে গেল৷ বাড়ির সদস্যদের অজান্তেই শনিবার গভীর রাতে চুরি হয়ে যায় বাড়ির মধ্যে রাখা নগদ ও গহনা সহ প্রায় দেড় লক্ষ টাকা। ঘটনাটি ঘটেছে মহিষাদল থানার বাসুলিয়াতে।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, মেয়ে মেয়ে কোয়েল প্রধান গর্ভবতী। তাই মেয়েকে নিজের বাড়িতে নিয়ে এসেছিলেন বাবা কৃষ্ণেন্দু প্রামানিক ও মা লিপিকা প্রামানিক। কৃষ্ণেন্দুবাবু কর্মসূত্রে বাইরে থাকেন। বাড়িত থাকতেন মা লিপিকা প্রামানিক, মেয়ে কোয়েল প্রধান ও কোয়েলের ঠাকুমা।

Advertisement

পরিবারের অভিযোগ, শনিবার রাতে একটি ঘরে মা ও মেয়ে অপর একটি ঘরে মেয়ের ঠাকুমা ঘুমিয়েছিল। আর একটি ঘরে কেউ ছিল না। সেই ঘরের মধ্যেই রাখা ছিল টাকা ও গহনা৷ শনিবার গভীর রাতে বাড়ির দক্ষিণপাশের দরজা ভেঙ্গে কেউ বা কারা ঢুকে বাড়ির সঞ্চিত অর্থ ও গহনা চুরি করে নিয়ে যায়৷ পাশাপাশি ঘরের সব জিনিসপত্র তছনছ করে দিয়ে যায়।

মেয়ের মা লিপিকা প্রামানিক জানান, সকালে ঘুম থেকে উঠে ওই ঘরে যেতে দেখি দরজা খোলা৷ ঘরে ঢুকতেই দেখি ঘরের জিনিশপত্র সব লন্ডভন্ড৷ টাকা গহনা রাখার জায়গাটি খোলা৷ মেয়েকে স্থানীয় নন্দকুমার থানার হাঁসগেড়িয়াতে বিয়ে দেওয়া হয়। জামাই কাজের সূত্রে বাইরে থাকেন। মেয়ে গর্ভবতী। তাই তার দেখাশোনার জন্য বাড়িতে নিয়ে আসি। তাঁর চিকিৎসার জন্য কিছু অর্থ সঞ্চয় করে বাড়িতে রেখেছিলাম। কিন্তু শনিবার রাতে তা চুরি হয়ে যায়। মহিষাদল থানায় অভিযোগ জানানো হয়েছে। অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। তবে চুরি কিনারা করতে পারেনি পুলিশ। তদন্ত জারি রেখেছে।

----
--