দিল্লি গেছেন অথচ সরোজিনী যাননি?

বেড়াতে গিয়ে সস্তায় মার্কেটিং করতে চান? তাহলে নিঃসন্দেহে এই প্রতিবেদনটি আপনার জন্য৷ বেড়াতে যাওয়া যাদের নেশা তারা দিল্লি যায়নি এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া বেশ ভার৷ তবে লালকেল্লা, কুতুব মিনার দেখার সঙ্গে সঙ্গে মাথায় ঘোরে বাড়ির সদস্যদের জন্য কিছু কিনে যাওয়ার কথা! তবে এই চিন্তা থেকে এবার আপনি মুক্ত৷

এবার দিল্লিতে গেলে সাইট সিন করার পাশাপাশি একবার সরোজিনী নগর মার্কেটে যেতেই পারেন৷ তবে গেলে আপনার পকেট ফাঁকা হতে বাধ্য৷ দিল্লির সবচেয়ে বড় ও বিখ্যাত মার্কেট হল এটি৷ আপনি যদি পুরো মার্কেটটি একদিনে ঘুরে শেষ করতে চান তাহলে আপনার চার থেকে পাঁচ ঘন্টা সময় লাগবে৷ ফলে বোঝাই যাচ্ছে হাতে সময় নিয়ে না গেলে দুধের স্বাদ ঘোলে মেতাটে হবে৷

- Advertisement -

খুব কম দামে একদম হালফিলের লেটেস্ট ফ্যাশনের খোঁজে এই মার্কেট হয়ে উঠেছে ছেলে মেয়েদের গন্তব্য৷ স্টাইলিশ কাপড় থেকে ডিজাইনিং ব্যাগ, ফ্যাশানেবল জুয়েলরি থেকে ঘরসজ্জার সরঞ্জাম সবই পাবেন এখানে৷ আর সব থেকে মজার ব্যাপার প্রতিটা জিনিসেরই বেশ কম দাম৷ একটু খোঁজ লাগালে পেতে পারেন নামিদামি ব্র্যান্ডেড প্রোডাক্টও৷ বেশির ভাগ দোকানেই ১০০, ২০০, ২৫০ টাকা দরে বিক্রির বোর্ড দেখতে পাবেন৷

তবে সরোজিনী নগর মার্কেট থেকে কেনাকাটা করার আগে কয়েকটা কথা মাথায় রাখবেন…
(১) কম দামে পাচ্ছেন বলে যা দেখছেন তাই কিনে ফেলবেন না৷ যেটা কিনছেন সেটা ভাল করে দেখে নেবেন৷ অনেক সময়েই ভাল করে না দেখলে ছেঁড়া ফাটা জিনিস থেকে থাকে৷ সুতরাং সবসময় সজাগ থাকুন৷

(২) আপনি যদি দর কষাকষি করতে পছন্দ না করেন তাহলে এই বাজারটি এড়িয়ে যাওয়াই শ্রেয়৷ কেননা জিনিসের দাম আকাশ ছোঁয়া বললে সেটা নিয়ে একটু দর কষাকষি করতে হবে৷ তবে যেসব দোকানে টাকার অঙ্ক আগে থেকেই ঝোলানো থাকবে সে সব দোকানে বার্গেনিং করতে হয় না৷ কারণ তার থেকে কমে আপনাকে তাঁরা কোনও জিনিসই বিক্রি করবে না৷


(৩) মার্কেটিং শুরুর আগেই কোনও এটিএম থেকে টাকা তুলে নিন৷ কারণে এই বাজারের কোনও দোকানই কার্ড নেয় না৷ তবে টাকা যতটা পারবেন খুচরো করে রাখার চেষ্টা করবেন৷ ১০০ বা ২০০-র নোট নিয়ে এই বাজারে মার্কেটিং করা অনেক বেশি সুবিধাজনক৷

(৪) সরোজিনী নগর মার্কেটে আপনি সাশ্রয়ী মূল্যে যে ফ্যাশনেবল জামাকাপড়গুলি পাবেন সেগুলি বেশির ভাগই এক্যপোর্ট কোয়ালিটির৷ তাই সস্তা দামে এখানে পাবেন বিভিন্ন ব্র্যান্ডেড জামাকাপড়৷

(৫) সর্বশেষ, নিজের মানিবযাগ, মোবাইল ফোন বা প্রযোজনিয় তথ্য খুব সতর্ক ভাবে রাখবেন৷ এত বড় মার্কেটে বহু রকমের মানুষ আসে৷ সুতরাং আপনার মূল্যবান সামগ্রী নিজের দায়িত্বে রাখতে হবে৷

এবার আসা যাক, কিভাবে এই মার্কেটে পৌঁছবেন৷ দিল্লির যেকোনও মেট্রো স্টেশন থেকে আইএনএ (INA) স্টেশনে নামবেন৷ সেখান থেকে যে কোনও অটোই আপনাকে পৌঁছে দেবে দিল্লি সরোজিনী নগর মার্কেটে৷ তবে মনে রাকবেন সোমবার এই বাজারটি বন্ধ থাকে৷ সোমবার বাদে রোজ সকাল ১০টায় বাজার খোলে৷ আর রাত প্রায় ৯ টা নাগাদ বন্ধ হয়ে যায়৷ তবে সোমবার গেলেও আপনি নিরাস হবেন না৷ কারণ সোমবার মার্কেটের শোরুমগুলি বন্ধ রাখা হয়৷ বাকি সব দোকানই কোলা থাকে৷ তাহলে দিল্লি গেলে মার্কেটিং-এর হদিশ এবার সরোজিনী নগর মার্কেট৷

Advertisement
---