সুন্দরিনী দুধ, ঘি, মধু, ডিম বিক্রি করবে মমতা সরকার

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: মাদার ডেয়ারির পাশাপাশি সুন্দরিনী দুগ্ধ প্রকল্পের মাধ্যমে উৎপাদন বাড়াবে রাজ্য সরকার৷ কিছুদিন আগেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর রাজ্য গুজরাটকে পিছনে ফেলে দুগ্ধ উৎপাদনে উৎকর্ষতার নজির রেখে সেরা হয়েছিল পশ্চিমবঙ্গ৷ সুন্দরবনের সমবায় সংস্থা সুন্দরিনীর আওতায় থাকা ৩ হাজার মহিলা ওই সমবায় সংস্থাটি সাহায্যে উপকৃত হয়েছেন৷ ২০১৫ সালে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সুন্দরিনী প্রকল্প উদ্বোধন করেন৷ সুন্দরবনে দুধ, ঘি, মধু, ডিম উৎপাদন করে ওই মহিলারা মোদীর রাজ্যকেও পিছনে ফেলে দিয়েছেন৷

কেন্দ্রীয় ডেয়ারি ডেভলপমেন্ট বোর্ড সুন্দরিনী ন্যাচারালস এর মডেলকেই শ্রেষ্ঠ মডেল হিসেবে পুরষ্কৃত করেছে৷ রাজ্যের প্রাণী সম্পদ দপ্তরের অধীনে সুন্দরবনের দুগ্ধ সমবায় এবং লিভারস্টক ডেভলপমেন্ট (সুন্দরিনী ন্যাচারালস) এই পুরষ্কার গ্রহণ করেছে৷ বিভিন্ন সরকারি প্রকল্পে এর আগেও জাতীয় সাফল্য পেয়েছে রাজ্য৷ ১০০ দিনের কাজ বা গ্রামীণ আবাস যোজনাতে সাফল্য এসেছে৷ কন্যাশ্রী প্রকল্পে এসেছে আন্তর্জাতিক সম্মান৷

রাজ্য ৩০ কোটি টাকা খরচ করছে এই প্রকল্পে৷ তবে কম খরচে আম জনতার ঘরে যে দুধ পৌঁছবে যে কথা দিচ্ছেন প্রাণী সম্পদ দপ্তরের অফিসাররা৷ এছাড়া, আগামী দিনে চাল, ডাল, ডিম উৎপাদনেও লক্ষমাত্রায় পৌঁছাতে চায় সুন্দরিনী৷ তবে রাজ্যের প্রাণী সম্পদ দপ্তরের দোকানগুলিতে পাওয়া যাবে সুন্দরিনী দুধের প্যাকেট৷

Advertisement
---