কাল সর্প যোগ থাকলে কি শুধুই খারাপ হয়?

কাল সর্প দোষ কথাটি অনেকেই শুনেছেন। এও শোনা যায় যে, কাল সর্প দোষ থাকলে মানুষের খারাপ হয়। জন্মের ছকেই থাকে এই কাল সর্প দোষ। অনেকেই মনে করেন, এটা থাকলে জীবনে অনেক বাধা-বিপত্তি আসে। সেটা কিছুটা ঠিক হলেও, এই কাল সর্প দোষের কিছু ইতিবাচক দিকও রয়েছে।

অনেকে পূজার মাধ্যমে এই দোষ কাটাতে চান। ব্রাহ্মণের বলা নিয়ম মেনে পূজা করে দোষ কাটানো সম্ভব বলেও মনে করেন অনেকে।

কী এই কাল সর্প দোষ?

- Advertisement -

জন্মকুণ্ডলীতে যদি রাহু এবং কেতুর মাঝে সবকটি গ্রহ অবস্থান করে তখন এই দশা হয়‚ একেই বলে কালসর্প যোগ বা কালসর্প দোষ। মোট ১২ রকমের কালসর্প যোগ রয়েছে। এক একটি সাপের নামে নামকরণ হয়েছে দশাগুলোর।

পুরাণ অনুসারে জানা যায়, স্বরভানু নামে এক অসুর সমুদ্র মন্থনের সময় অমৃত পান করেছিল। তাই মোহিনীরূপে ওই অসুরের মুণ্ডচ্ছেদন করেন বিষ্ণু। কিন্তু তা সত্বেও সেই মুণ্ড আর ধড় অমৃতপানের ফলে অমরত্ব লাভ করে। মুণ্ডটিই রাহু হিসেবে পরিচিত আর দেহটিকে বলা হয় কেতু। এগুলি মহাবিশ্বে ঘুরে বেড়াতে থাকে।

কাল সর্প দোষ কি খারাপ?

কাল সর্প যোগেরও কিছু ইতিবাচক দিক রয়েছে। এই যোগ একজন মানুষকে সাহসী, সৎ ও একনিষ্ঠ করে তোলে। জ্যোতিষ বিশেষজ্ঞরা বলে থাকেন, এই যোগ থাকলে মানুষ কর্মঠ ও সফল হয়। এই যোগকে যদি ইতিবাচক হিসেবে মেনে নেওয়া যায়, তাহলে জীবনের সব ক্ষেত্রে সাফল্য স্পর্শ করা সম্ভব।

Advertisement ---
---
-----