চার বছরে মোদী যা করেছেন ৭০ বছরেও তা হয়নি, কটাক্ষ রাহুলের

নয়াদিল্লি: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী চার বছরে যা কাজ করেছেন ৭০ বছরেও দেশে তেমন উন্নয়ন দেখা যায়নি৷ কটাক্ষ কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর৷ সোমবার ভারত বনধের সমর্থনে দিল্লির রামলীলা ময়দানে বক্তব্য রাখেন রাহুল৷ সেখানে তিনি কংগ্রেস জমানার সঙ্গে মোদী জমানার তুলনা টেনে আনেন৷ বলেন, ‘‘নরেন্দ্র মোদী বলতেন ৭০ বছরে যা হয়নি চার বছরে আমরা তা করে দেখিয়েছি৷ তিনি ঠিক কথাই বলেছেন৷ তিনি চার বছরে যা করে দেখিয়েছেন ৭০ বছরেও তা হয়নি৷ এক নাগরিক আরও এক নাগরিকের সঙ্গে মারপিট করছে৷ ধর্মে ধর্মে লড়াই হচ্ছে৷ জাতের মধ্যে লড়াই হচ্ছে৷ এক রাজ্য অন্য রাজ্যের বিরুদ্ধে বিষেদাগার করছে৷ ৭০ বছরে এমনটা দেখা যায়নি৷’’

সবে কৈলাস সফর থেকে ফিরে এসেছেন রাহুল গান্ধী৷ সোমবার প্রথম জনসমক্ষে আসেন৷ প্রথমে যান রাজঘাটে মহাত্মা গান্ধীর সমাধিতে কৈলাস থেকে আনা পবিত্র জল নিবেদিত করতে৷ সেখান থেকে চলে যান রামলীলা ময়দানে বনধের সমর্থনে পা মেলাতে৷ এই প্রতিবাদ মিছিল থেকেই মোদীকে আক্রমণের লক্ষ্যবস্তু করেন রাহুল৷ তিনি বলেন, ‘‘২০১৪ সালে অনেক প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন৷ দেশ, যুব সম্প্রদায়, কৃষক ও মহিলাদের উন্নয়নে অনেক গালভরা কথা বলেছিলেন৷ মানুষ সেই সব কথা বিশ্বাস করেছিল৷ বিপুল জনাদেশ নিয়ে তিনি ক্ষমতায় আসেন৷ চার বছর কেটে গিয়েছে৷ মানুষ পরিস্কার দেখতে পাচ্ছে তিনি এই চার বছরে কী কাজ করেছেন৷’’

এরপরই পেট্রপণ্যের দাম বৃদ্ধি, রাফায়েল চুক্তি নিয়ে মোদীর নীরবতার সমালোচনা করেন৷ জানান, পেট্রল, ডিজেলের দাম বাড়ছে৷ প্রধানমন্ত্রী চুপ৷ রাফায়েল চুক্তি নিয়ে যে বেনিয়ম হয়েছে তাতেও চুপ তিনি৷ একের পর কৃষক হত্যা, মহিলাদের উপর অত্যাচারের ঘটনাতে মুখ খোলেননি তিনি৷ কেন তিনি চুপ সেই নিয়েও প্রশ্ন তোলেন কংগ্রেস সভাপতি৷

রামলীলা ময়দান থেকেও নোটবন্দি ও জিএসটি ট্যাক্স নিয়ে মোদীকে বিঁধতে ছাড়েননি রাহুল৷ তাঁর অভিযোগ, সরকারের এই দুই সিদ্ধান্ত ছোট ও মাঝারি ব্যবসায়ীদের কোমর ভেঙে দিয়েছে৷ বলেন, ‘‘নোটবন্দির সুফল কি কেউ বোঝেনি৷ প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন কালো টাকা উদ্ধার হবে৷ কিন্তু এই সুযোগে কালো টাকা সবাই সাদা করে নিয়েছে৷ তারপর এল গব্বর সিং ট্যাক্স৷ এই ট্যাক্সের জেরে দুর্নীতি আরও বেড়ে গিয়েছে৷’’ এদিন রামলীলা ময়দানে সোনিয়া গান্ধী উপস্থিত থাকলেও কোনও মন্তব্য করেননি৷

----
-----