বন্ধ হতে চলেছে হোয়াটসঅ্যাপ পরিষেবা, জেনে নিন কোন ফোনে

বর্তমানে প্রতিদিনের জীবনের সঙ্গে ওতোপ্রোতভাবে জড়িয়ে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া৷ আর সোশ্যাল মিডিয়া বলতেই যে নামগুলি সবার প্রথমে উঠে আসে তার মধ্যে অন্যতম হল হোয়াটসঅ্যাপ৷ চটজলদি মেসেজ পাঠানো থেকে শুরু করে নিজের অবস্থান পরিচিতদের সঙ্গে শেয়ার করে নেওয়া৷ সবই রয়েছে হোয়াটসঅ্যাপের পরিষেবায়৷ কিন্তু, ২০১৮ সালেই বেশ কিছু ফোনে বন্ধ হতে চলেছে হোয়াটসঅ্যাপ৷ আরও কিছু ফোনে হোয়াটস অ্যাপ পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হবে ২০২০ সালে৷

এই সপ্তাহের প্রথমদিকেই হোয়াটসঅ্যাপ তার মোবাইল ডিভাইস সাপোর্ট পেজ আপডেট করেছে৷ যেখানে, কোন কোন ফোনে আর হোয়াটস অ্যাপ সাপোর্ট করছে না তার তালিকা দেওয়া হয়েছে৷ পাশাপাশি, ২০১৮-র শেষে কোন কোন ফোনে আর হোয়াটসঅ্যাপ সাপোর্ট করবে না তারও তালিকা দেওয়া হয়েছে৷

এই বছরের শেষে যে সব যন্ত্র নোকিয়া এসফর্টি প্ল্যাটফর্মে চলছে, সেগুলিতে হোয়াটসঅ্যাপ সাপোর্ট বন্ধ করে দেওয়া হবে৷ নোকিয়া আশা সিরিজের বেশ কিছু স্মার্টফোন এই প্ল্যালফর্মে চলছে৷ এই প্ল্যাটফর্মের ব্যবহারকারীরা নতুন অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন না৷ আগের অ্যাকাউন্টকে পুনরায় যাচাইও করতে পারবে না৷ নোকিয়ার সিম্বিয়ান এসসিক্সটি প্ল্যাটফর্মে যে যন্ত্রগুলি চলছে সেগুলিতেও আর হোয়াটসঅ্যাপ সাপোর্ট নেই৷

২.৩.৩ থেকে পুরানো অ্যান্ড্রয়েড ভার্সন দ্বারা পরিচালিত যন্ত্রগুলি থেকেও হোয়াটসঅ্যাপ সাপোর্ট তুলে নেওয়া হয়েছে৷ অ্যান্ডয়েড ভার্সন ২.১ এক্লেয়ার ও ২.২ ফ্রোয়োর জন্য আপডেট বন্ধ করে দিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ৷ রেহাই পাবে না আইফোনও৷ আইওএস ৬ দ্বারা পরিচালিত যন্ত্র ও আইফোন ত্রিজিএসেও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ সাপোর্ট৷

একই অবস্থা ব্ল্যাকবেরি অপারেটিং সিস্টেম, ব্ল্যাকবেরি ১০ এবং পুরানো প্ল্যাটফর্মে পরিচালিত স্মার্টফোনেরও৷ বাদ যায়নি উইন্ডোস অপারেটিং সিস্টেমও৷ উইন্ডোস ৮ দ্বারা পরিচালিত স্মার্টফোনগুলিতে হোয়াটসঅ্যাপ সাপোর্ট বন্ধ হয়ে গিয়েছে৷ ফলে, এই বছর নতুন কোনও আপডেট পাবেন না উইন্ডোস ব্যবহারকারীরা৷ হোয়াটসঅ্যাপ সাপোর্ট বন্ধ হয়ে গিয়েছে উইন্ডোস সেভেনেও৷

এ ছাড়া, অ্যান্ড্রয়েড জিন্জারব্রেড ও আইওএস ৭ দ্বারা পরিচালিত যন্ত্রগুলিতেও ২০২০ সালের ১ ফেব্রুয়ারির পর থেকে হোয়াটসঅ্যাপ সাপোর্ট বন্ধ করে দেওয়া হবে৷ যে সব ফোনে হোয়াটসঅ্যাপ পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে সেই সব ফোনের ব্যবহারকারীরা তাদের চ্যাট হিস্ট্রি নতুন ফোনে স্থানান্তর করতে পারবেন না৷ যদিও, তারা তাদের চ্যাট হিস্ট্রি ই-মেল মারফত নিয়ে রাখতে পারবেন৷

----
-----