চায়ের বদলে কীটনাশক! অসুস্থ পাঁচ

স্টাফ রিপোর্টার, রায়গঞ্জ: চায়ের পাতার বদলে কীটনাশক ওষুধ খেয়ে বিপত্তি ডেকে আনলেন একই পরিবারের পাঁচজন সদস্য৷ এমনটাই ঘটেছে চোপড়া থানার লালবাজার গ্রামে৷

এলাকাবাসী সূত্রে খবর, সোমবার সকালে আব্দুল হোসেনের মেয়ে ফরজুন নিশা রোজের মতো বাড়ির প্রত্যেকের জন্য চা তৈরি করার জন্য রান্না ঘরে যান৷ কিন্তু সাময়িক কোনও ভুলে অথবা অন্যমনস্কতায় সে চায়ের পাতার পরিবর্তে হুবহু চায়ের মত দেখতে ফরজুন থায়মেট (এক ধরণের কীটনাশক ওষুধ) মিশিয়ে দেয় চায়ের পাত্রে৷ তারপর সে ও তার গোটা পরিবার ফরজুন থায়মেট মেশানো ওই চা খেলে অসুস্থ হয়ে পড়েন সকলে৷

আরও পড়ুন: জামাইষষ্ঠীতে রাজের জন্য শ্বশুরবাড়িতে রাজকীয় ব্যবস্থা

- Advertisement -

তবে উল্লেখ্য, ফরজুন নিশার বাবা আব্দুল হোসেন সেই চায়ে একবার চুমুক দিতে না দিতেই টের পেয়ে যান৷ তৎক্ষণাৎ সেই কথা পরিবারের বাকি সদস্যদের জানাতেই তাদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পরে৷ ততক্ষণে পরিবারের সবাই সেই চা অবস্য খেয়েও ফেলেছেন৷ এদিকে পরিবারের এই পাঁচ সদস্যকে আশঙ্কা জনক অবস্থায় ইসলামপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে ভরতি করা হয়৷ বর্তমানে পরিবারের প্রত্যেকেরই অবস্থা অত্যন্ত গুরুতর৷ এমনটাই জানিয়েছেন মহকুমা হাসপাতালের এক চিকিৎসক৷ তবে এই ঘটনা থেকে কত তাড়াতাড়ি আশঙ্কা মুক্ত হওয়া যায় সেই ব্যাপারে হাসপাতালের চিকিৎসক যদিও কিছুই জানাতে পারছেন না৷

আরও পড়ুন: চ্যাটচ্যাটে গরমেও চকচকে চুল

তবে গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখছে রায়গঞ্জ পুলিশ৷ একজন সাধারণ পরিবারের কাছে কিভাবে ওই কীটনাশক এল আর কেনই বা ওই কীটনাশক রাখা ছিল বাড়িতে সে বিষয় দৃষ্টিনিপাত করেছেন পুলিশ বাহিনী৷

Advertisement ---
---
-----