জানেন কেন যুদ্ধবাজ পাকিস্তানের বিমানবাহী রণতরীই নেই?

প্রতিকি ছবি

নয়াদিল্লি: প্রতিদিন সীমান্তে চোরাগোপ্তা হানা। আচমকা জঙ্গি লেলিয়ে অসতর্ক জওয়ানদের প্রাণনাশ৷ যে কোনও মুহূর্তে যুদ্ধ বাধানোর হুমকি। সেইসঙ্গে পরমাণু হামলার শাসানি। অথচ, ভারতকে প্রতিদিন গুচ্ছ গুচ্ছ হুমকি দেওয়া পাকিস্তানের ভাঁড়ারে কোনও বিমানবাহী রণতরীই নেই। আশ্চর্য হলেও সত্য, তার পরেও প্রকৃত যুদ্ধে ভারতকে হারানোর খোয়াব দেখে ইসলামাবাদ, বকলমে রাওয়ালপিণ্ডি। এত আস্ফালন যাদের গলায়, তাদের হাতে কেন কোনও এয়ারক্রাফট কেরিয়ার নেই?

বিশেষজ্ঞ মহলের পর্যালোচনা, মূলত তিনটি কারণে এয়ারক্রাফট কেরিয়ার বা বিমানবাহী রণপোত নির্মাণ করতে বা কিনতে পারেনি পাকিস্তান। সব থেকে বড় কারণ হিসাবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, পাকিস্তানের কোনও এয়ারক্রাফট কেরিয়ার না থাকার মূলে সেদেশের অনুদান-নির্ভর অর্থনীতি। বিশ্বব্যাংক ও রাষ্ট্রসংঘের ২০১৪ সালের রিপোর্ট অনুযায়ী, পাকিস্তানের মোট অভ্যন্তরীণ উৎপাদন ২৪ হাজার ৬০০ কোটি ডলার। সেখানে ভারতের জিডিপি ২.২ ট্রিলিয়ন ডলার (মার্কিন হিসাবে ১ ট্রিলিয়ন = ১০০০ কোটি, ব্রিটিশ হিসাবে ১০০ কোটি কোটি)।

যা পাকিস্তানের থেকে অন্তত নয় গুণ বেশি। একদিকে বেহাল অর্থনৈতিক পরিস্থিতি। অন্যদিকে সেইসঙ্গে যুক্ত হয়েছে ফ্রাঙ্কেনস্টাইন মার্কা বিভিন্ন জঙ্গি সংগঠনের লাগাতার হামলা। অর্থনৈতিক ভিত্তি না থাকার পাশাপাশি তৈরি হয়নি অশিক্ষার ও অনগ্রসরতার সঙ্গে লড়াই করার উপযুক্ত পরিকাঠামোও। পাল্লা দিয়ে বেড়েছে জনসংখ্যার হার।

- Advertisement -

পাকিস্তানের জিডিপি বৃদ্ধির হার ৪.৩ শতাংশ, পশ্চাদগামিতায় যা বর্তমানে আফগানিস্তানেরও পরে। সেদেশেরই অর্থনীতিকদের আশঙ্কা, ২০১৬ সালের মধ্যে জিডিপি-র হারে পৃথিবীর অন্যান্য পিছনের সারির দেশের মধ্যে সব থেকে তলানিতে পৌঁছবে পাকিস্তান। অর্থনৈতিক বিকাশের হারে নিদেনপক্ষে পাকিস্তানের আগে রয়েছে কেনিয়া (৬.৯%), জাম্বিয়া (৬.৭%), বাংলাদেশ (৬.৩%), নামিবিয়া (৫.৬%), উগান্ডা (৫.৪%), রিপাবলিক অব কঙ্গো (৫.২%), এমনকী নেপালও (৫.০%)।

অর্থনৈতিক সমস্যার সঙ্গে সঙ্গে যুক্ত হয়েছে প্রযুক্তির অভাব। সেদেশের অন্যতম সংবাদ মাধ্যম ‘ডন’ পত্রিকাও প্রযুক্তিহীনতার প্রসঙ্গ তুলে এয়ারক্রাফট কেরিয়ার নেই কেন, সে বিষয়ে সুর চড়িয়েছে। একটি এয়ারক্রাফট কেরিয়ার রক্ষণাবেক্ষণের দৈনিক খরচ ১১ কোটি টাকা। সেইসঙ্গে এয়ারক্রাফট কেরিয়ারের দেড়-দু’ হাজার নাবিকের রোজকার ভরণপোষণের খরচ। পাকিস্তানের বর্তমান অবস্থা যা, তাতে এই খরচ বহন করতে তারা অপারগ।

Advertisement
---