তিন দশক পুরানো মামলায় জেলে যেতে হতে পারে সিধুকে

চন্ডীগড়: ২০ বছর আগের চড় কাণ্ডের জেরে জেলে যেতে হতে পারে পাঞ্জাব সরকারের পর্যটন মন্ত্রী নভজ্যোত সিং সিধুকে? বুধবার শীর্ষ আদালত ১৯৮৮ সালের সেই মামলার পিটিশন গ্রহণ করার পরই উঠছে এই প্রশ্ন৷ এই মামলার শুনানি শেষে শীর্ষ আদালত সিধুর ভাগ্য নির্ধারণ করবে৷

১৯৮৮ সালে ২৭ ডিসেম্বর গাড়ি পার্কিংকে কেন্দ্র করে বিবাদের সূত্রপাত৷ গুরনাম সিং নামে এক ব্যক্তিকে চড় মারেন সিধু৷ সেই ঘটনার কয়েকঘণ্টা বাদেই মারা যান ওই ব্যক্তি৷ পরবর্তীকালে মামলা গড়ায় নিম্ন আদালত ও সেখান থেকে পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্টে৷ সিধুকে তিন বছরের সাজা শোনায় হাইকোর্ট৷

সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে যান সিধু৷ সুপ্রিম কোর্ট, ৩২৩ ধারায় সিধুকে এই ঘটনায় দোষী সাব্যস্ত করে। যেখানে তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে আঘাত করার। এছাড়া ৩০৪(২) ধারায় অনিচ্ছাকৃত খুনে দোষী সাব্যস্ত করেও মাত্র এক হাজার টাকা জরিমানা দিয়ে তাঁকে মুক্তি দেওয়া হয়। অপরদিকে ১৯৯৯ সালে পাতিয়ালা কোর্টও প্রমাণের অভাবে সিধুকে এই মামলা থেকে অব্যাহতি দেয়৷

- Advertisement -

এদিকে মৃত ব্যক্তির পরিবারের তরফে সু্প্রিম কোর্টে পিটিশন দাখিল করার পর সেটি গৃহীত হয়৷ যার পরিপ্রেক্ষিতে পাঞ্জাব সরকারের মন্ত্রীকে নোটিশ পাঠায় বিচারপতি এ এম খানউইলকর ও বিচারপতি সঞ্জয় কৃষ্ণণ কউলের ডিভিশন বেঞ্চ৷ নোটিশে সিধুকে জানাতে বলা হয়েছে কেন সেই ঘটনায় তাঁকে কঠিন শাস্তি দেওয়া হবে না৷

Advertisement
---