ওয়াশিংটন: গাড়িটা চলতে শুরু করেছিল অস্বাভাবিকভাবেই৷ কারণটা তখনও সামনে আসেনি৷ গুরুত্ব না দিয়েই নিজস্ব গতিতে গাড়িটিতে চালিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন চালক৷ কিন্তু, বেশিক্ষণ ঠেকানো যায়নি পরিস্থিতি৷ ঘটনার তদন্ত করতে গিয়ে সামনে এল ভয়ঙ্কর দৃশ্য৷

গাড়ির হুডের নীচ থেকে উদ্ধার হয় এক বিশালাকার অজগর৷ গাড়ির ইঞ্জিনের মধ্যে সাপটি আশ্রয় নিয়েছিল৷ ঘটনাটি ঘটেছে মার্কিন মুলুকে (উইসকনসিন)৷ ফেসবুকের মাধ্যমে ভাইরাল হয় পুরো বিষয়টি৷

ঘটনাস্থলে পৌঁছয় স্থানীয় পুলিশ বাহিনী৷ তবে, তাঁদের মিলিত প্রচেষ্টাতেও সমস্যার সুরাহা হয়নি৷ অবশেষে, পরিস্থিতি সামলাতে ডাকা হয় সাপুড়েকে৷

আরও পড়ুন: আচমকা ভূমিকম্পে মৃত ২, আহত ২০০রও বেশি

ঘটনাটি স্যোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন পুলিশ আধিকারিকরা৷ ছবিটি শেয়ার করা হয় দুহাজার বার পর্যন্ত৷ কমেন্ট বক্স ভরেছে হাজারো কমেন্টে৷ এক ব্যাক্তি লেখেন ‘ও মাই গস! আমি আমার গাড়ির হুড আর কোনদিনই খুলব না’৷ অন্য একজন লেখেন, ‘ভাল গল্প! মানুষ মানুষকে সাহায্য করছে’৷

স্থানীয় রিপোর্টের তথ্য অনুসারে, চারফুটের এই অজগরটি উদ্দার করেছে এক সাপ উদ্ধারকারী৷ যদিও, পরে তিনি সাপটির রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব নেননি৷ পরে জানা যায় অজগরটি একটি পোষ্য৷ যেটি তার মালিকের কাছে থেকে পালিয়ে যায়৷

আরও পড়ুন: গরুদের হাতে রাখি বাঁধলেন এই মুসলিম মহিলারা

এই ধরণের পোষ্য প্রতিপালন যদিও অবৈধ৷ তাই, সাপটির মালিক পুনরায় সাপটিকে আর নিজের কাছে রাখতে পারবেন না৷ গাড়িতে সাপ উদ্ধারের ঘটনা এই প্রথম নয়৷ চলতি বছরেই (জুনে) ভার্জিনিয়াতে এক মহিলা গাড়ি চালানোর সময় গাড়ির এয়ার ভেন্ট থেকে একটি সাপকে বেরিয়ে আসতে দেখেন৷

----
--