তেহরান: কয়েকদিন আগেই নাচের ভিডিও পোস্ট করে গ্রেফতার হন চার ইরানি মহিলা। এর মধ্যে ১৭ বছরের জিমনাস্ট মায়েদে হোজাবরিকে চিহ্নিত করা সম্ভব হয়েছে। শুক্রবার তাঁর স্বীকারোক্তি ইরানের এক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশও করা হয়েছে। সেখানে তিনি বলেছেন, ‘আমার কোনও খারাপ উদ্দেশ্য ছিল না। আমি কখনই অন্যদের আমাকে অনুকরণ করতে উৎসাহ দিইনি। আমি কোনও নেটওয়ার্কের সঙ্গেও যুক্ত নই।’

ইরানে মোটামুটিভাবে প্রচলিত ইন্সটাগ্রাম। হোজাবরি তাঁর ইন্সটাগ্রাম অ্যাকাউন্টে অন্তত ৩০০ ছবি ও ভিডিও পোস্ট করেছেন। এরপরই তাঁর অ্যাকাউন্ট বন্ধ সম্পূর্ণভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তাঁর অন্তত ৬ লক্ষ ফলোয়ার ছিল।

হোজাবরি যে ভিডিও পোস্ট করেছিলেন, তাতে তাঁর মাথায় হিজাব ছিল না। কারণ, ইরানে মাথায় হিজাব না পরে প্রকাশ্যে নাচা অপরাধ।

এই ঘটনার পর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় একের পর ইরানি মহিলা নিজেদের নাচের পোস্ট করে প্রতিবাদ জানান।

ইরানের ব্লগার হোসেন রোনাঘি মালেকি লিখেছেন, ‘বিশ্বের কেউ যদি শোনে যে একটা ১৭-১৮ বছরের মেয়ে নাচের জন্য গ্রেফতার হয়েছে, তারা হাসবে।’

অন্য একজন ট্যুইট করে লিখেছেন, ‘আমি সাধারণত ছবি বা ভিডিও শেয়ার করি না। তবে আজ দিনটা খুব ইম্পর্টেন্ট।’

----
--