টি-টোয়েন্টিই আমার ফেভারিট ফর্ম্যাট: ঋদ্ধিমান

উইকেটের পিছনে গ্লাভস হাতে তিনি ‘সুপারম্যান’৷ কখনও কখনও তাঁর ব্যাটে ওঠে ‘সুপার সাইক্লোন’৷ তিনি ঋদ্ধিমান সাহা৷ এই মুহূর্তে ক্রিকেটবিশ্বের সেরা উইকেটকিপার৷ মাস দু’য়েক আগে উইকেটের পিছনে কেপ টাউন টেস্টে ১০টি ক্যাচ নিয়ে রেকর্ড গড়ছেন বছর তেত্রিশের এই বাঙালি৷ আর শনিবার ব্যাট হাতে ক্লাব ক্রিকেটে ২০ বলে সেঞ্চুরি করে গড়লেন বিশ্বরেকর্ড৷ দিন দশেক পরেই আইপিএলের মঞ্চে পা-রাখছেন ঋদ্ধি৷ তার আগে কলকাতা২৪x৭-এর প্রতিনিধি সুশান্ত মণ্ডলের সঙ্গে একান্ত আলাপচারিতায় টিম ইন্ডিয়ার টেস্ট উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান৷

প্রশ্ন: ২০ বলে সেঞ্চুরির বিশ্বরেকর্ড! অবিশ্বাস্য ইনিংস খেলার পর কী মনে হয়েছিল?
ঋদ্ধিমান: আমি সবসময় বর্তমান নিয়েই ভাবি৷যেটা হয়ে গিয়েছে, সেটা আমার কাছে অতীত৷তা নিয়ে ভাবতে চাই না৷ কারণ এমনটা তো নয়, যে পরের দিন আমি ১০৩ রান থেকে ব্যাটিং শুরু করছি!

প্রশ্ন: আইপিএলের ঠিক আগে একই ফর্ম্যাটে এই রকম একটা ইনিংস নিশ্চয় আত্মবিশ্বাস বাড়াবে?
ঋদ্ধিমান: অবশ্যই আত্মবিশ্বাস বাড়াবে৷ তবে আমার ইনিংস যদি দলের কাজে লাগে তাহলে আরও ভালো লাগবে৷

- Advertisement -

প্রশ্ন: টেস্ট স্পেশালিস্টের তকমা সেঁটে গিয়েছে৷ কিন্তু এই ঝেড়ো ইনিংসগুলি খেলার পর মনে হয় না, কেন ওয়ান ডে এবং জাতীয় টি-২০ দেল নেই ?
ঋদ্ধিমান: আমি যখন বাংলার হয়ে অনূর্ধ্ব-১৯ খেলিনি, তখন আমার চিন্তাভাবনা যা ছিল, আজও তাই রয়েছে৷আমার কাজ খেলে যাওয়া৷ রঞ্জি ট্রফি বা অনান্য ঘরোয়া টুর্নামেন্টে রান করা এবং ভালো উইকেটকিপিং করে যাওয়া৷ বাকিটা নির্বাচকদের কাজ৷ এখানেও আমার হাতে কিছু নেই৷

প্রশ্ন: এবার আইপিএলে নতুন দলের জার্সি পড়ছেন? সানরাইজার্স দলে নাম লিখিয়ে কেমন লাগছে?
ঋদ্ধিমান: অন পেপার সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ভালো দল৷ ব্যাটিং, বোলিং ও ফিল্ডিং তিন বিভাগেই গত কয়েক বছর ধরে ওরা ভালো করছে৷ এই টিমের পার্ট হতে পারাটা সৌভাগ্যের৷ তাছাড়া দু’বার চ্যাম্পিয়ন (ডেকান চাজার্স ও সানরাইজার্স হায়দরাবাদ) হওয়ার ফলে এই টিমের বিশ্বাস রয়েছে, তারাও ভালো করতে পারবে৷ এই টিমে আমি ব্যাটিং ও উইকেটকিপিংয়ে অবদান রাখতে পারলে ভালো লাগবে৷

প্রশ্ন: এর আগে আইপিএলে তিনটি ড্রেসিংরুম শেয়ার করেছেন? কলকাতা, চেন্নাই ও পঞ্জাবের মধ্যে পার্থক্য কোথায়?
ঋদ্ধিমান: পেশাদার ক্রিকেটে বিশেষ কিছু আলাদা নয়৷প্রত্যেকেই জানে তার কাজ হল পারফরম্যান্স করা৷সেটা না-করতে পারলে দলে থাকবে না৷ কেকেআর, চেন্নাই কিংবা পঞ্জাব বলে আলাদা কিছু নয়৷ আশা করি সানরাইজার্সের ড্রেসিংরুমও এরকমই হবে৷ আমার মনে হয় ভালো খেলার জন্য ড্রেসিংরুম চাপমুক্ত হওয়া দরকার৷

প্রশ্ন: আইপিএল ফর্ম্যাটটা আপনার জন্য পারফেক্ট৷ এবারের টার্গেট কী?
ঋদ্ধিমান: প্রত্যেকের নিজস্ব কিছু লক্ষ্য থাকে৷ আমারও রয়েছে৷ পারফর্ম করে দলকে তিন-চারটে ম্যাচে জেতাতে পারলে ভালো লাগবে৷

প্রশ্ন: শর্টার ফর্ম্যাটে কখনও অ্যাঙ্কার হিসেবে ইনিংস এগিয়ে নিয়ে যাওয়া, আবার কখনও ঝোড়ো ইনিংস খেলে ম্যাচ জেতানো কতটা কঠিন?
ঋদ্ধিমান: আমি টেস্ট স্পেশালিস্ট হলেও আমার ফেভারিট ফর্ম্যাট কিন্তু টি-২০৷ সুতরাং ফেভারিট ফর্ম্যাটে আমাকে যেখানেই ব্যাটিং করতে নামানো হোক না কেন, আমার মানিয়ে নিতে কোনও অসুবিধা হয় না৷

প্রশ্ন: ধোনির অবসরের পর কি ভারতের ওয়ান ডে এবং টি-২০ দলে ঋদ্ধিমান সাহাকে দেখা যেতে পারে?
ঋদ্ধিমান: দেখো যতদিন খেলব, ততদিন আশা থাকবেই৷ যখন-তখন সুযোগ আসতে পারে৷ আমার যখন টেস্ট অভিষেক হয়েছিল তখন কোচ গ্যারি কার্স্টেন বলেছিলেন তুমি খেলছো না৷ কিন্তু হঠাৎ করেই আমার সামনে সুযোগ আসে৷ কিন্তু আমার প্রস্তুতি ঠিক থাকায় প্রথম ইনিংসে রান না-পেলেও দ্বিতীয় ইনিংসে কিছুটা রান করতে পেরেছিলাম৷

প্রশ্ন: প্রথম তিনটে ওয়ান ডে-র পর বাকি ছ’টি ওয়ান ডে-র জন্য অপেক্ষা করতে হয়েছে চার বছর৷ আবার যদি হঠাৎ করে সুযোগ আগে মানিয়ে নিতে অসুবিধা হবে না?
ঋদ্ধিমান: অসুবিধা হওয়ার কথা নয়৷ কারণ আমি ঘরোয়া টুর্নামেন্টে শর্টার ফর্ম্যাটে যেভাবে খেলি, সেভাবেই জাতীয় দলে নিজেকে মানিয়ে নেব৷

প্রশ্ন: ক্রিকেট ও কন্ট্রোভার্সি শব্দ দু’টো ওতোপ্রতোভাবে জড়িত৷ কিন্তু ঋদ্ধিমান সাহা কীভাবে এর থেকে দূরে থাকেন?
ঋদ্ধিমান: কারণ আমি কম কথা বলি তাই৷

প্রশ্ন: এবারের আইপিএলের আগে ফ্যানেদের জন্য কী বার্তা দেবেন?
ঋদ্ধিমান: ফ্যানেদের বলবো এবার ‘অরেঞ্জ আর্মি’-র জন্য গলা ফাটাও৷পাশাপাশি আমার জন্যও৷এই পজিটিভ ভাইব গুলো আমাকে পারফর্ম করতে সাহায্য করবে৷

প্রশ্ন: ইডেনে যখন কেকেআর-এর বিরুদ্ধে নামতে হয়, তখন কী অনুভূতি হয়?
ঋদ্ধিমান: অন্য দলের জার্সি পড়ে যখন ইডেনে নামি, তখন আমি ইডেনকে অ্যাওয়ে গ্রাউন্ড হিসেবে দেখি৷ আর সমর্থনের ব্যাপারটা মিশ্র থাকে৷ ফ্যানেরা যেমন ভালো পারফরম্যান্স দেখতে চায়, কেকেআর সমর্থকরা তা চায় না৷ যেমন পরে শুনেছিলাম, বেঙ্গালুরুতে ২০১৪ আইপিএল ফাইনালে কেকেআর-এর বিরুদ্ধে ব্যাটিং করার সময় অনেক কেকেআর সমর্থকই চেয়েছিলেন আমি যেন তাড়াতাড়ি আউট হয়ে যায়৷

প্রশ্ন: আবার ফিরে আসি জাতীয় দলের জার্সি প্রসঙ্গে৷ ইংল্যান্ড সফরের জন্য কোনও বিশেষ পরিকল্পনা?
ঋদ্ধিমান: শুনেছি সফরের আগেই কয়েকজন ইংল্যান্ডে গিয়ে প্র্যাকটিস করবে৷ আমি সেই দলে থাকলে ভালো হবে৷ না-হলে গিয়ে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব পরিবেশ ও পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নিতে হবে৷

প্রশ্ন: নিউল্যান্ডসে অস্ট্রেলিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজে বল বিকৃতির ঘটনাকে একজন ক্রিকেটার হিসেবে কীভাবে দেখছেন?
ঋদ্ধিমান: দেখো এটা একটা আর্ট৷ কিন্তু এটা যদি ক্রিকেটীয় পদ্ধতিতে হয়ে থাকে তাহলে ঠিক আছে৷ কিন্তু অস্ট্রেলিয়া যেটা করেছে তা ঠিক নয়৷

Advertisement
---