‘একমাত্র যোগাসনই ধর্মনিরপেক্ষ এবং বিজ্ঞানসম্মত’

লন্ডন: বিদেশের মাটিতে যোগাসনের প্রচারে যোগগুরু রামদেব৷ লন্ডনে আয়োজিত একটি সভায় রামদেব জানান, যোগাসন একমাত্র ধর্মনিরপেক্ষ ও বিজ্ঞানসম্মত৷ যোগাসন সবার উপরে সবচেয়ে প্রয়োজনীয়৷

লন্ডনের অলিম্পির ওয়েস্ট হলে যোগাসন করেন রামদেব৷ যোগ দেন কয়েকশো মানুষ৷ যোগাসনের প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে তাঁকে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি জানান, যোগাসন নিয়েই তিনি পড়াশুনা করেছেন৷ দেশবাসীকেও তিনি যোগের শিক্ষা দিচ্ছেন,বিশ্ববাসীকেও দিতে চান৷

পাশাপাশি,যোগাসন নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগের প্রশংসা করেন তিনি৷ কারণ, ২০১৫ সালের ২১ জুন যোগ দিবসের সূত্রপাত৷ সেদিন দিল্লির রাজপথে প্রায় ৩০ হাজার মানুষের সঙ্গে যোগাসন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷ ২০১৪ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর রাষ্ট্রসংঘের অধিবেশনে যোগাসনকে আন্তর্জাতিক ভাবে উদযাপনের বার্তা দেন প্রধানমন্ত্রী৷ যা মান্যতা দেয় রাষ্ট্রসংঘ৷ তারপর থেকেই বিশ্বব্যাপী যোগ দিবস পালন করা হয়৷

- Advertisement -

২১ জুন মহা সমারোহে দেশ ও বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে আন্তর্জাতিক যোগ দিবস পালন করা হয়৷ সেদিন বিশ্ব রেকর্ড গড়েন যোগগুরু রামদেব৷ আন্তর্জাতিক যোগ দিবসে যোগগুরুর যোগমঞ্চেই সবচেয়ে বেশি জমায়েত৷ দেড় লাখের বেশি মানুষের সঙ্গে যোগাসন করেছিলেন রামদেব বাবা৷

রাজস্থানের কোটায় আন্তর্জাতিক যোগ দিবস পালন করেন রামদেব৷ বিশ্বর রেকর্ড গড়তেই দেড় লাখের উপরে জমায়েতের ব্যবস্থা করা হয়৷ যোগগুরুর জনপ্রিয়তা এতটাই যে দেড় লাখ ছাড়িয়ে ভিড় ক্রমশ বাড়তে থাকে৷

বিশ্ব রেকর্ডের শংসাপত্র হাতে নিয়ে রামদেব জানিয়েছিলেন, একসঙ্গে দেড় লাখ মানুষের জমায়েতে আমি অভিভূত৷ মানুষের মধ্যে যোগাসনের উৎসাহ বাড়ছে৷ বিশ্ব রেকর্ড আসলে যোগসনে মানুষের জয়৷ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী বসুন্ধরা রাজে৷ রামদেবকে বিশ্ব রেকর্ডের শংসাপত্র হাতে তুলে দেন মুখ্যমন্ত্রী৷

লন্ডনেও রামদেব ভক্তদের সমাগম চোখে পড়ার মতই৷ রামদেব জানান, বিশ্বব্যাপী একতার বার্তা দিতেই যোগাসন৷ তাই প্রত্যেক ঘরে যোগের অভ্যাস হোক৷

Advertisement
---