স্টাফ রিপোর্টার, বর্ধমান: বিজেপি কর্মীদের মিথ্যে মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগ উঠল শাসক দলের বিরুদ্ধে৷ শুধু তাই বিজেপির দেওয়াল লিখন মুছে দেওয়ার অভিযোগও উঠেছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে৷ এরই প্রতিবাদে বিজেপির যুবমোর্চার সমর্থকরা বর্ধমান থানায় বিক্ষোভ দেখায়৷

বিজেপির অভিযোগ, বুধবার রাতে রায়ান অঞ্চলের নাড়ী বেলবাগান এলাকার বাসিন্দা যুবমোর্চার সম্পাদক সুরজিত হাজরা চৌধুরী সহ রাহুল ঘোষকে পুলিশ গ্রেফতার করে। রায়ান গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধানের বাড়িতে হামলার অভিযোগ রয়েছে এই বিজেপি নেতাদের বিরুদ্ধে। তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বকে চাপা দিতেই মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হয়েছে বিজেপি নেতাদের। এরই পাশাপাশি বর্ধমান পুরসভার ১ নং ওয়ার্ডে বিজেপির দেওয়াল লিখন মুছে দেওয়ার অভিযোগ করেছেন বলেন বিজেপি নেতৃত্ব।

এই প্রসঙ্গে তৃণমূলের জেলা সাধারণ সম্পাদক উজ্জ্বল প্রামাণিক জানিয়েছেন, এটা হাস্যকর মিথ্যা অভিযোগ। আইন আইনের পথেই চলছে। অন্যায় করেছে তাই পুলিশ গ্রেফতার করেছে। দেওয়াল লিখন মুছে দেওয়ার প্রসঙ্গে উজ্জ্বল বাবু জানিয়েছেন, তৃণমূলের এত দুর্দিন আসেনি যে দেওয়াল লিখন মুছে দিতে হবে।

শুধু বর্ধমানেই নয় জেলায় জেলায় বিজেপি কর্মীকে মারধরের ঘটনা খবরের শিরোনামে উঠে এসেছে৷ বৃহস্পতিবার উত্তর দিনাজপুরের ইসলামপুরে বিজেপি নেতা অপূর্ব চক্রবর্তীকে আক্রমণ করা হয়েছে৷ বিজেপির অভিযোগ, এলাকায় তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা অপূর্বকে আক্রমণ করে৷ আশঙ্কাজনক অবস্থায় ওই ব্যক্তিকে উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজে ভরতি করা হয়েছে৷