দিনের আলোয় কুপিয়ে খুন, ভাইরাল ভিডিওতে হতবাক পুলিশ

লখনউ: উত্তর প্রদেশের সম্ভলে একটি খুনের ভিডিও প্রকাশ পেয়েছে৷ সেই ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল সাইটে৷ ধারাল হাতিয়ার দিয়ে কুপিয়ে খুন করা হয়েছে৷ সেই ভিডিও রেকর্ড করেছে একজন৷ বাকিরা ওই ব্যক্তিকে পাথর কুড়ুল দিয়ে থেঁতলে ও কুপিয়ে মারা হয়েছে৷ দিনের আলোয় খোলা জায়গার এই খুনের ভিডিও দেখে হতবাক সকলেই। মনে পড়ে গিয়েছে কয়েকদিন আগের রাজস্থানের সেই ভিডিও যাতে এভাবেই এক মুসলিম ব্যক্তিকে কুপিয়ে মারা হয়৷

একটি পরিবার জানিয়েছে মৃত ওই ব্যক্তি তাঁদেরই ছেলে৷ যাকে প্রায় তিন মাস ধরে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না৷ পুলিশ এই ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করেছে৷ তদন্ত চলছে৷ ইউপি পুলিশ অপরাধ ও অপরাধীদের কাবু করতে লক্ষ দাবি করলেও সত্য প্রকাশ পায় এই ভিডিও দেখলেই৷ সম্ভলে তিন মাস যাবত৷ নিরুদ্দেশ থাকা যুবকের পরিবার পুলিশে অভিযোগ দায়ের করে৷ পুলিশের তদন্তে ছেলে একদিন বাড়ি ফিরবে এই আশা নিয়েই বসে থাকে৷ এদিকে ঘটে যায় অনর্থ৷ পরিবারের হাতে এসে পৌঁছয় সেই ভাইরাল ভিডিও৷ ভিডিওতে বাড়ির ছেলেকে মৃত্যু যন্ত্রণায় ছটফট করতে দেখে তাঁদের কি অবস্থা হবে?

এই ভাইরাল ভিডিওয় যুবকটিকে পাশবিক ভাবে মারতে দেখা যায়৷ একজনের ওপর তিন চার জন মিলে ধারাল অস্ত্র দিয়ে হামলা করে৷ একজন কুড়ুল চালাচ্ছে তো কেউ তলোয়ার দিয়ে কোপাচ্ছে৷ তৃতীয় জন লোহার রড দিয়ে মাথা থেঁতলাচ্ছে৷ মাটিয়ে লুটিয়ে পড়ে যুবক চিৎকার করতে থাকে কিন্তু বাঁচানোর কেউ নেই৷ মারার জন্য রয়েছে অনেকে৷ তার ভিডিও করার জন্যও রয়েছে একজন৷ সারা শরীর রক্তে ভেসে গিয়েছে৷ ভিডিওটি কবে তোলা তা জানা যায়নি৷ কিন্তু এই ভিডিওটি একের পর এক মোবাইলে ফরওয়ার্ড করা হতে থাকে৷ এরই মাঝে আজমগড়ের এক ব্যক্তি সম্ভলের বাসিন্দা ওই যুবকের ভাইকে ভিডিওটি হোয়াটসঅ্যাপে পাঠায়৷ ভিডিও দেখেই পরিবার হতবাক হয়ে যায়৷ ওই পরিবারেরই ছেলের ভিডিও৷ যাকে তিন মাস ধরে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিলনা৷ ছেলেকে চিনতে সময় লাগেনি পরিবারের৷

- Advertisement -

এই ভিডিওয় লেখা রয়েছে “পিএম মোদীর রাজত্বে আইনের কোনও মানে রইলনা৷ এটিকে বেশি করে শেয়ার করে মোদীর মন্ত্রীদের কাছে পৌঁছে দাও৷” এখন প্রশ্ন উঠছে কে এটি মোদী সরকারের মন্ত্রীদের কাছে পাঠাতে চেয়েছিল৷ ভিডিও দেখে তাড়াহুড়ো করে যুবকের পরিবারের লোক পুলিশের কাছে পৌঁছয়৷ ভিডিও দেখে পুলিশও হতবাক হয়ে যায়৷

মৃত যুবকের পরিবার পুলিশকে বলে এই ছেলে আর কেউ নয় তাদেরই ঘরের ছেলে অজব সিং৷ দিল্লিতে চাকরি করত সে৷ সেখান থেকেই একদিন হঠাৎ গায়েব হয়ে যায় সে৷ পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করে৷ এখন পুলিশের সামনে সবথেকে বড় চ্যালেঞ্জ এটা খুঁজে বের করা যে ঠিক কাকে খুন করা হচ্ছে৷ খুনিরাই বা কারা এবং কে এই ভিডিওটি ভাইরাল করল৷

যুবকের অবস্থা দেখেও খুনিরা থামেনি৷ কুরুল দিয়ে একের পর এক কোপ বসাতে থাকে৷ তাতেও মন ভরেনি হত্যাকারীদের৷ একজন হাতে পাথর তুলে থেঁতলে দেয় যুবককে৷ যন্ত্রণায় ছটফট করতে করতে নিজেকে বাঁচাতে চেষ্টা করলেও ক্রমাগত পাশবিক আঘাত আসতে থাকে৷ ৪৮ সেকেন্ডের এই ভিডিও দেখে যে কেউ ভয় পেয়ে যাবে৷ মাত্র ৪৮ সেকেন্ডেই একটি তরতাজা ছেলেকে কুপিয়ে খুন করে ফেলা হল৷

Advertisement ---
-----